Beta

বাঁশখালীতে দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি দাবি গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার

০৫ এপ্রিল ২০১৬, ২০:২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার গণ্ডামারা ইউনিয়নে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ ও বিক্ষোভ মিছিলে গুলিবর্ষণের ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা। 

আজ মঙ্গলবার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সংগঠনের নেতারা ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত পুলিশ ও এস আলম গ্রুপের সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং প্রস্তাবিত কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবি জানান।    

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘এস আলম গ্রুপ কর্তৃক কৃষিজমি ও বসতভিটা দখলকারী এবং পরিবেশ ধ্বংসী কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের প্রতিবাদে স্থানীয় জনগণের সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে এস আলম গ্রুপের উসকানিতে পুলিশের গুলিতে পাঁচজন নিরীহ জনগণ মারা যান এবং প্রায় অর্ধশতাধিক আহত হন। সরকার কৃষিজমি বাস্তুভিটা রক্ষার নীতিকে অস্বীকার ও জনগণের মতামতের কোনো গুরুত্ব না দিয়ে লুটপাটের স্বার্থে এবং ক্ষমতা ও গায়ের জোরে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। সরকারের এই অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ-সমাবেশ করতে গিয়ে পাঁচজনকে জীবন দিতে হলো।’
 
গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার কেন্দ্রীয় পরিচালনা পর্ষদের সমন্বয়ক ও ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অধ্যাপক আবদুস সাত্তার, পরিচালনা পর্ষদের সদস্য বাসদের (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নাননু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, সমাজবাদী দলের সিদ্দিকুর রহমান, বাসদের (মাহবুব) ইয়াছিন মিয়া, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের হামিদুল হক প্রমুখ নেতারা উক্ত ঘটনার প্রতিবাদে যৌথ বিবৃতি দেন। 

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement