Beta

শিশুদের জন্য লিখতে আনন্দ পাই : মুহম্মদ জাফর ইকবাল

১০ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৯:৫৬

ফিচার ডেস্ক

‘প্রথমবারের মতো শুধু শিশু সাহিত্যিকদের সম্মেলনে আমি অংশগ্রহণ করলাম। খুব ভালো লাগছে, কারণ এখানে যাঁরা আছেন তাঁর সবাই শিশু সাহিত্যিক। অনেক বিষয়ে আমাকে লিখতে হলেও শিশুদের জন্য লিখতে আমি খুব আনন্দ পাই।’ কথাগুলো বলেছেন মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় চন্দ্রাবতী একাডেমির আয়োজনে শিশুসাহিত্য সম্মেলনের শেষ দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি। এ ধরনের সম্মেলন করার জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিশু সাহিত্যিক ফারুক হোসেন, জাহিদ রেজা নূর, এবি বাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক শামসিয়া আই। সভাপতি ছিলেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান।

অনুষ্ঠানে অনেক শিশু সাহিত্যিক তাঁদের স্বরচিত ছড়া পাঠ করেন। এর মধ্যে শিশুসাহিত্যিক আসলাম সানি এবং আমিরুল ইসলামের ছড়া ও বক্তৃতা দর্শকরা বেশ উপভোগ করেন।

চন্দ্রাবতী একাডেমির নির্বাহী পরিচালক কামরুজ্জামান কাজল বলেন, ‘শিশু সাহিত্য সম্মেলন করে আমরা ভালো সাড়া পেয়েছি । এর পরের বছর আমরা আন্তর্জাতিক শিশুসাহিত্য সম্মেলন করার পরিকল্পনা করছি। আশা করছি, সবাই আমাদের পাশে থাকবেন ও দোয়া করবেন।’

বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে চন্দ্রাবতী একাডেমি আয়োজিত দুই দিনব্যাপী শিশুসাহিত্য সম্মেলন শুরু হয় গত শুক্রবার । সেদিন সন্ধ্যা ৬টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। দেশের শিশু সাহিত্যিক ও চন্দ্রাবতী একাডেমির প্রতি শুভকামনা জানান তিনি।

এ ছাড়া অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, লেখক, সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব ও শিশুসংগঠক আবুল মোমেন এবং এবি ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মসিউর রহমান চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন দেশের মনস্বী পণ্ডিত বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন অধ্যাপক রুপা চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানে চন্দ্রাবতী একাডেমি শিশুসাহিত্য পুরস্কারপ্রাপ্ত তিনজন স্বনামধন্য ব্যক্তির হাতে পুরস্কার ও ৫০ হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়। তাঁরা হলেন খ্যাতিমান শিশুসাহিত্যক ও শিশুসংগঠক রফিকুল হক, শিশুতোষ গন্থের অঙ্কনশিল্পী ও শিশুসাহিত্যিক হাশেম খান এবং রফিকুন নবী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চন্দ্রাবতী একাডেমির ছোটদের আনন্দবার্ষিকী ২০১৭ ‘তেপান্তর’-এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলনের শেষ দিন ছিল গতকাল শনিবার। বিভিন্ন অধিবেশনে গতকাল সারাদিন প্রবন্ধপাঠ, আলোচনা এবং ছড়াকবিতার আবৃত্তির মাধ্যমে শিশুসাহিত্যের একটি সংক্ষিপ্ত রূপরেখা তুলে ধরা হয়েছে।

সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছেন শিশুসাহিত্যিক আলী ইমাম, শিশুসাহিত্যিক ও বিজ্ঞানলেখক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক, ধ্রুব এষ, শিশুসাহিত্যিক আমীরুল ইসলাম, সংস্কৃতি-ব্যক্তিত্ব আবুল মোমেন, প্রকাশক মাজহারুল ইসলাম, কবি নাসির আহমেদ, সাতরং-এর নির্বাহী সম্পাদক সুবলকুমার বণিক শিশুসাহিত্যিক আসলাম সানী, আখতার হুসেন, রাশেদ রউফ, রহীম শাহ, সুজন বড়ুয়া, মিহির মুসাকী, আনজীর লিটন, ফারুক নওয়াজ, রোকেয়া খাতুন রুবী, মারুফুল ইসলাম, নাসের মাহমুদ, ফারুক হোসেন, জাহিদ রেজা নূর, মাহফুজুর রহমান, বিজ্ঞানলেখক সুব্রত বড়ুয়াসহ বিশিষ্ট শিশুসাহিত্যিকরা।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement