Beta

ভৈরবে বিএনপিনেতা সাদেক হোসেনের ইন্তেকাল

১৭ মে ২০১৮, ২০:৪৪

কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও ভৈরব উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. সাদেক হোসেন (৭০) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

গতকাল বুধবার ভোরে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হলে তাৎক্ষণিক সাদেক হোসেনকে ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ২টার দিকে তিনি মারা যান। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

সাদেক হোসেন ব্যক্তিগত জীবনে একজন ব্যবসায়ী ছিলেন। ব্যবসার পাশাপাশি তিনি রাজনীতি ও সমাজসেবায় নিয়োজিত ছিলেন। তিনি ভৈরব পৌরসভা নির্বাচনে পরপর দুইবার কমিশনার নির্বাচিত হয়ে এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রাখেন। তিনি তাঁর দল বিএনপি থেকে মনোনীত হয়ে পৌরসভায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে অল্প ভোটের ব্যবধানে হেরে যান। এ ছাড়া সামাজিক বিরোধ-মীমাংসায় ন্যায়-নীতিবান ও ভালো দরবারি হিসেবে তিনি সুনাম কুঁড়িয়েছিলেন।

গতকাল সাদেক হোসেনের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে চারদিকে শোকের ছায়া নেমে আসে। তাঁকে শেষবার এক নজর দেখতে নিজবাড়ি শহরের উত্তর ভৈরবপুর এলাকার ছাবর আলী হাজির  বাড়িতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের ঢল নামে। সেখানে ছুটে যান তাঁর দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহযোদ্ধা, আত্মীয়স্বজন, জনপ্রতিনিধি এবং ভিন্ন মতের শুভাকাঙ্ক্ষীরাও।

পরে রাত ১০টার দিকে ভৈরবপুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে সাদেক হোসেনের জানাজা হয়। এর আগে মরহুমের রুহের মাগফেরাত এবং কর্মময় জীবনের স্মৃতি তুলে ধরে শ্রদ্ধা জানান ভৈরব উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ মো. গিয়াস উদ্দিন, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক মো. শরীফুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি হাজি সিরাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম সেন্টু, ভৈরব চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি আলহাজ আব্দুল্লাহ আল মামুন, সাবেক সভাপতি আলহাজ মো. হুমায়ুন কবীর প্রমুখ।

মরহুমের জন্য দোয়া এবং ক্ষমা প্রার্থনাপূর্বক বক্তব্য দেন চাচাতো ভাই মো. জিল্লুর রহমান, ভাতিজা ও উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান আলহাজ আল মামুন ও বড় ছেলে ইমরান হোসেন।

এ সময় মরহুমের কফিনে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করেন মো. শরীফুল আলম, জেলা, উপজেলা ও পৌর বিএনপিসহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা এবং রূপসী বাংলা নবীন সংসদসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন। পরে মরহুমের লাশ জানাজা শেষে পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার বাদ আসর মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনায় ভৈরবপুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। পরিবারের উদ্যোগে আয়োজিত ওই মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মরহুমের পরিবারের সদস্য, আত্মীয়স্বজন, বংশীয় লোকজনসহ স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন অংশ নেয়।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement