Beta

পাবনায় ‘বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তির’ ইন্তেকাল

০৫ জুন ২০১৮, ২৩:০৭

পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে পাবনার ফরিদপুর উপজেলার বিএলবাড়ী গ্রামের আলহাজ আহসান উদ্দিন শাহ। পুরোনো ছবি : এনটিভি

পাবনার ফরিদপুর উপজেলার বিএলবাড়ী গ্রামের আলহাজ আহসান উদ্দিন শাহ আর নেই। আজ মঙ্গলবার গ্রামের বাড়িতে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আহসান উদ্দিন শাহর বয়স হয়েছিল ১২৬ বছর। তিনিই পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ ছিলেন বলে দাবি করেছে তাঁর পরিবার।

আলহাজ আহসান উদ্দিন শাহ স্ত্রী ও ১৪ ছেলেমেয়ে রেখে গেছেন। এঁদের মধ্যে  সাতজন ছেলে ও সাতজন মেয়ে।

ইন্দোনেশিয়ায় সোদিমেদজো নামের ১৪৬ বছরের সবচেয়ে বেশি বয়সী ব্যক্তি ২০১৭ সালে মারা যাওয়ার পর, তিনিই বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ ছিলেন বলে ধারণা করা হয়।

আজ বাদ এশা ফরিদপুর উপজেলার বিএলবাড়ী কবরস্থানে আহসান উদ্দিন শাহকে দাফন করা হয়। ১৮৯২ সালের শীতের কোনো এক মাসে তিনি জন্ম গ্রহণ করেন করেন বলে জানা যায়।

আহসান উদ্দিন শাহের ছোট ছেলে গোলাম মওলা এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমার বাবার দীর্ঘ জীবন পরিক্রমায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির আমূল পরিবর্তন যেমন দেখেছেন, তেমনি তিনটি শতকও দেখেছেন। তিনি জীবদ্দশায় ব্রিটিশ সরকার, পাকিস্তান সরকার ও বাংলাদেশ সরকারের শাসন দেখেছেন।

নিয়ন্ত্রিত জীবন এবং খাদ্যাভ্যাসের কারণেই এত দীর্ঘ জীবন পেয়েছেন বলে দাবি করতেন আলহাজ আহসান উদ্দিন শাহ। ছোট বেলা থেকেই তিনি নিয়মিত গরুর দুধ পান করতেন। তাঁর প্রিয় খাবার ছিল দুধ-কলা ও ভাত।

১৯৬৯ সালে মুক্তিযুদ্ধের আগেই আহসান উদ্দিনের প্রথম স্ত্রী মারা যান। সে সময়ই তাঁর চার ছেলে ও চার মেয়ে ছিল। ১৯৭১ সালে তিনি আবার বিয়ে করেন। তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী এখনো জীবিত।

গোলাম মওলা বলেন, ‘আমার বয়স ৪০ বছর। আমার জন্মের আগেই আমি দাদা ও নানা হয়েছি। আমাদের সবার বড় দুই বোন আয়শা খাতুন এবং আনোয়ারা খাতুন আনুর বয়স যথাক্রমে ৯৫ ও ৯০ বছর। আয়শা খাতুনের বড় ছেলে অর্থাৎ আমার বড় ভাগিনা আশরাফ উদ্দিনের বয়স ৮০ বছরের কাছাকাছি।’

গত বছরের মে মাসে ইন্দোনেশিয়ায় সোদিমেদজো নামের ১৪৬ বছরের সবচেয়ে বেশি বয়সী ব্যক্তিটি মারা যান। তাই,ধরণা করা হচ্ছে পাবনার আহসান উদ্দিন শাহ ছিলেন পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ।

গত বছর আলাপকালে আহসান উদ্দিন শাহ এনটিভি অনলাইনকে বলেছিলেন, ‘আমার বয়স কত হয়েছে তা সঠিক বলতে পারব না। তবে পাবনার ঈশ্বরদীর পাকশীতে যখন হার্ডিঞ্জ ব্রিজ নির্মাণ করা হয়,তখন আমার বয়স ছিল ২২ থেকে ২৩ বছরের কাছাকাছি। ১৯০৮ সালের দিকে ব্রিটিশ শাসিত ভারত সরকার ঈশ্বরদী-সিরাজগঞ্জ রেলপথ তৈরির কাজ শুরু করে।’

ফরিদপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. খলিলুর রহমান সরকার বলেন, ‘আমরা যত দূর জানি, বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ ছিলেন আমাদের ফরিদপুর উপজেলার বিএলবাড়ী গ্রামের আহসান উদ্দিন শাহ। তাঁর বয়স হয়েছিল ১২৬ বছর।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement