Beta

‘খালেদা জিয়া’ হলের নামফলক মুছে ফেলায় চবি শিক্ষকদের নিন্দা

০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:৫৪

নিজস্ব প্রতিবেদক
চবিতে ‘খালেদা জিয়া’ হলের নামফলক ভেঙে ফেলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ছবি : ইউএনবি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া হল’-এর নামফলক মুছে ফেলায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক পরিষদ।

আজ বৃহস্পতিবার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. শাহ আলম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ নিন্দা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশের তিনবারের সফল ও সার্থক প্রধানমন্ত্রীর নামে স্থাপিত খালেদা জিয়া হলের নামফলক মুছে ফেলা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও গর্হিত কাজ বলে আমরা মনে করছি। এগুলো হলো অসুস্থ্য রাজনৈতিক চর্চার অংশ।’

এ ঘটনাকে ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক পরিবেশ নষ্ট করার সঙ্গে সঙ্গে হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক ও দেশপ্রেমিক জনতার মনে আঘাতের শামিল’ বলে উল্লেখ করা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম এ ব্যাপারে বলেন, ‘এই দুর্বৃত্তায়নের রাজনীতি থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি।’

অবিলম্বে দোষীদের আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করার ব্যাপারেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও সংশ্লিষ্টদের আহ্বান জানান মোহাম্মদ আশরাফুল। 

গত ৪ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া’ আবাসিক হলের নামফলক ভেঙে ফেলেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সে সময় তাঁরা সদ্যপ্রয়াত ‘বীরপ্রতীক তারামন বিবি’র নামে হলের নামকরণের ব্যাপারে প্রশাসনের কাছে দাবি জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘এভাবে মুখে মুখে বললেই হলের নাম পরিবর্তন হয়ে যায় না। ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি পেশ করলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ভেবে দেখবে।’

ওই দিন নামফলক ভেঙে ফেলার সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি মো. মনছুর আলম, সহসভাপতি আবদুল মালেক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু তোরাব পরশ, উপদপ্তর সম্পাদক মিজানুর রহমান বিপুল, শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক আমীর সোহেল প্রমুখ।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement