Beta

হাজিরা দিতে এসে দেখলেন নবজাতকের মুখ!

০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৪১

আদালতে হাজিরা দেওয়ার সময় নবজাতকের মুখটি দেখেন সেলিম। ছবি : এনটিভি

মহসিন ওরফে সেলিম। গত ২২ দিন ধরে কারাগারে আটক। তাঁর বিরুদ্ধে মাদকের মামলা হয়েছে। তিনদিন আগে বাবা হয়েছেন সেলিম। খবর পেলেও নবজাতকের মুখ দেখা হয়নি তাঁর।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে হাজিরা ও জামিনের শুনানি ছিল সেলিমের। সেখানেই নবজাতককে নিয়ে হাজির হন সেলিমের স্ত্রী সালমা খাতুন। এমন একটি বিষয়ের কথা জানতে পারেন বিচারক। তারপর সেলিম নিজের সন্তানের মুখ দেখেন। নবজাতকের মুখ দেখেই হাসি ফুটল সেলিমের চোখেমুখে। সালমার চোখে তখন পানি।

২০টি ইয়াবা বড়ি রাখার অভিযোগে গত ১৪ নভেম্বর রাজধানীর হাতিরঝিল এলাকায় আটক হন সেলিম। তাঁর আইনজীবী মোহাম্মদ আল আমিন জানান, সেলিম পরিস্থিতির শিকার।

গত ৩ ডিসেম্বর সেলিমের একটি ছেলে সন্তান হয়। কারাগারে ওই সংবাদ পৌঁছানো হলেও সেলিম  সন্তানের মুখ দেখেননি। অতঃপর সেলিমের সে দুঃখ আজ মুছেছে। বিচারকের মহানুভুবতায় সেলিম তাঁর সন্তানের মুখ দেখতে পারলেন। সেলিম কোলে নিতে পেরেছেন তাঁর সন্তানকে।

আজ ঢাকার মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারীর আদালতে এমনই এক ঘটনা ঘটেছে।

সেলিমের আইনজীবী মোহাম্মদ আল-আমিন জানান, আজ আদালতে সেলিমের হাজিরা ও জামিনের শুনানি ছিল। জামিন শুনানি উপলক্ষে সেলিমকে আদালতে হাজির করা হয়। শুনানির সময় সেলিমের নবজাতক শিশু হয়েছে বলে জামিন চাওয়া হয়। কিন্তু আইনের বাধ্যবাধকতার থাকায় বিচারক জামিন দিতে পারেননি। তবে বিচারক সেলিম ও তার নবজাতক সন্তানকে দেখা করার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।

আদালতে শিল্পী নামের এক নারী আইনজীবী জানান, বিচারকের মহানুভবতায় আমরা মুগ্ধ। নবজাতক সন্তানকে দেখার পরে বাবার কান্না দেখে অনেকের চোখে জল চলে এসেছিল। আসামি জামিন পেয়ে শিশুর কাছে যাবে বলে আমরা আশাবাদী।   

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement