Beta

বিএনপির প্রার্থী হাবিবের ওপর হামলা

ভূমিমন্ত্রীর ছেলেসহ সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার দাবি বিএনপির

২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:১৬

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পাবনা শহরের গোপালপুর লাহিড়ীপাড়ায় জেলা বিএনপির কার্যালয় চত্বরে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। ছবি : এনটিভি

পাবনা-৪ আসনে বিএনপির প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের ওপর হামলার নিন্দা জানিয়ে এ ঘটনায় ভূমিমন্ত্রীর ছেলে শিরহান শরীফ তমালসহ হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে জেলা বিএনপি। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পাবনা শহরের গোপালপুর লাহিড়ীপাড়ায় জেলা বিএনপির কার্যালয় চত্বরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হাবিবুর রহমান তোতা অভিযোগ করেন, গতকাল বুধবার ঈশ্বরদী আলহাজ হাইস্কুল মাঠে নির্বাচনী গণসংযোগকালে প্রকাশ্য দিবালোকে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফের ছেলে শিরহান শরীফ তমালের নেতৃত্বে ৩০ থেকে ৪০ জনের সন্ত্রাসী দল হামলা চালায়। তারা গুলি করে আতঙ্ক সৃষ্টি করে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিবকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। আমাদের নেতাকর্মী তাঁকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে তাদেরও ছুরিকাঘাত করার চেষ্টা করেছে। আমরা এ হামলার তীব্র নিন্দা এবং ভূমিমন্ত্রীপুত্র তমালসহ সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দলে হামলার ঘটনা ঘটেছে আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন দাবির জবাবে জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক বলেন, মনোনয়ন নিয়ে বিএনপির মনোমালিন্যের অনেক আগেই অবসান ঘটেছে। হামলার সময় আমি নিজে ভূমিমন্ত্রীর পুত্র ও ঈশ্বরদী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শিরহান শরীফ তমালকে লাল রঙের শার্ট পরিহিত অবস্থায় পিস্তল হাতে ঘুরতে দেখেছি। তমাল ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রনির নেতৃত্বে হাবিবুর রহমান হাবিবকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করা হয়েছে। হুমকি-ধমকি দিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের নির্বাচনের মাঠ থেকে সরাতে না পেরে তারা হাবিবুর রহমান হাবিবকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিত হামলা করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুস সামাদ খান মন্টু, সহসভাপতি মাসুদ খন্দকার, যুগ্ম সম্পাদক নূর মোহাম্মদ মাসুম, আনিসুল হক বাবু, জেলা যুবদল সভাপতি মোসাব্বির হোসেন সঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক হিমেল রানা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, বিএনপি প্রার্থী হাবিবুর রহমানের ওপর হামলায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে প্রশাসন তৎপর রয়েছে বলে জানিয়েছেন ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী। তিনি জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে র‌্যাব, বিজিবি পুলিশ কাজ করছে। নির্বাচনে যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলায় যথেষ্ট প্রস্তুতি রয়েছে।

Advertisement