Beta

কলেজছাত্রী মুক্তা হত্যার আসামি গ্রেপ্তার

০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:৫২

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলা থেকে মুক্তা হত্যা মামলার আসামি সোহাগ মীরাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ছবি : এনটিভি

ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী বেনজির জাহান মুক্তা (১৯) হত্যা মামলার আসামি সোহাগ মীরাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার চাকামইয়া গ্রামে সোহাগের ফুপুর বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাঁকে। নলছিটি ও কলাপাড়া থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে সোহাগকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার হওয়া সোহাগ পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নিশানবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা।

আজ শুক্রবার সকালে ঝালকাঠি পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম জানান, গত ৪ ফেব্রুয়ারি দুপুরে ঝালকাঠির নলছিটির বারইকরণ গ্রামের বাড়ি থেকে ফোনে ডেকে নিয়ে বেনজির জাহান মুক্তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। মুক্তা ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের বিএ প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

প্রেমের সম্পর্ক ভেঙে দেওয়ায় সোহাগ এ হত্যাকাণ্ড ঘটায় বলে মুক্তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। এ ঘটনায় মুক্তার বাবা পরদিন দুপুরে নলছিটি থানায় একটি মামলা করেন। মামলার পর র‌্যাব, পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) তিনটি দল আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালায়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরো জানান, প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে ঝামেলার কারণে সোহাগ মুক্তার কাছ থেকে তাঁর দেওয়া মোবাইল ফোনটি নিয়ে যান। পরে মোবাইলে থাকা নিজের সিমটি ফেরত চান মুক্তা। সিম ফেরত দিতে মুক্তাকে স্থানীয় একটি বটগাছের পাশে আসতে বলেন সোহাগ। পরে মুক্তা ওই বটগাছের পাশে গেলে সোহাগের সঙ্গে দেখা হয়। তারপর তাঁদের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে মুক্তাকে চাকু দিয়ে আঘাত করেন সোহাগ।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া সার্কেল) মোজাম্মেল হোসেন রেজা, নলছিটি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাখাওয়াত হোসেন, পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার প্রমুখ।

Advertisement