Beta

পুলিশের ধাওয়ায় নদীতে পড়ার চারদিন পর মিলল যুবকের লাশ

২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২৩:২৯

গাজীপুরের কালীগঞ্জে পুলিশের ভয়ে পালাতে গিয়ে নিহত রিয়াদ সিকদার। ছবি : সংগৃহীত

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের ভয়ে পালাতে গিয়ে নিখোঁজের চারদিন পর এক যুবকের লাশ বুধবার শীতলক্ষ্যা নদী থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের নাম রিয়াদ সিকদার (২৫)। তিনি গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার মূলগাঁও গ্রামের শাহজাহান সিকদারের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, কালীগঞ্জের মূলগাঁওয়ের প্রাণ-আরএফএল কোম্পানির কারখানার পাশে শীতলক্ষ্যা নদীর তীর থেকে কয়েকজন ব্যক্তি গত বেশ কিছুদিন ধরে অবৈধভাবে মাটি কেটে নিয়ে অন্যত্র বিক্রি করছিল। খবর পেয়ে গত রোববার ভোর ৬টার দিকে কালীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রেজাউল করিমের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটি উত্তোলনকারীদের ধাওয়া করে ইঞ্জিনচালিত ট্রলার ও মাটি কাটার সরঞ্জামাদিসহ পাঁচজনকে আটক করে। এ সময় পুলিশের তাড়া খেয়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও রিয়াদ সিকদার নদীতে পড়ে নিখোঁজ হন। অবৈধভাবে মাটি কেটে নেওয়ার ঘটনায় রিয়াদসহ ১২ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করে পুলিশ।

এদিকে ঘটনার পর স্থানীয়রা নিখোঁজ রিয়াদের সন্ধানে নদীতে তল্লাশি চালিয়ে ব্যর্থ হন। পরে নিখোঁজের বিষয়টি পরিবারের পক্ষ থেকে কালীগঞ্জ থানায় জানানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল সোমবার নদীতে খোঁজাখুঁজি করেও রিয়াদের সন্ধান না পেয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এরপর দুদিন ধরে নিখোঁজ যুবকের স্বজন ও স্থানীয়রা রিয়াদের সন্ধানে ঘটনাস্থল ও আশপাশের এলাকায় ব্যাপক খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। একপর্যায়ে বুধবার সকালে নিখোঁজ রিয়াদের লাশ শীতলক্ষ্যা নদীর মূলগাঁও এলাকায় ভাসতে দেখে এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়।

নিহত রিয়াদের ভাই রিফাত শিকদার জানান, নদীর পাড় থেকে মাটি চুরি করে নেওয়ার খবর শুনে তা দেখার জন্য কয়েক স্বজনের সঙ্গে রিয়াদ রোববার সকালে ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় পুলিশের ধাওয়ায় রিয়াদ নিখোঁজ হয়। নিহত রিয়াদের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার নাক ও মুখ দিয়ে রক্ত ঝরছিল।

এ ব্যপারে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু বকর মিয়া জানান, অবৈধভাবে মাটি কাটার সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ট্রলার ও মাটি কাটার সরঞ্জামাদিসহ পাঁচজনকে আটক করে। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অপর শ্রমিকরা শীতলক্ষ্যা নদী সাঁতরে নদীর অপর পাড় নরসিংদীর পলাশ থানা এলাকার দিকে পালিয়ে যায়। পরে আটককৃতদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ১২ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। রিয়াদ সিকদার মামলার সর্বশেষ অভিযুক্ত ব্যক্তি। পরে ওই ঘটনার সময় রিয়াদ ওই নদীতে নিখোঁজ হয়েছে বলে তার পরিবার থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। পুলিশের সহযোগিতায় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল টানা দুদিন ঘটনাস্থলে খোঁজাখুঁজি করেও তাঁর সন্ধান পায়নি। অবশেষে বুধবার রিয়াদের ভাসমান লাশ নদী থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। তবে তাঁর শরীরের কোথাও কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। রিয়াদ অবৈধভাবে মাটি কাটার ঘটনায় জড়িত।

Advertisement