Beta

বালুমহালের দখল নিয়ে ক্ষমতাসীনদের দুপক্ষে গোলাগুলি, আহত ১০

২২ এপ্রিল ২০১৯, ১০:১৭ | আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৩২

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় বালুমহালে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গতকাল রোববার আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে ১০ জন আহত হন। ছবি : এনটিভি

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় বালুমহালে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীনদের দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ছয়জন গুলিবিদ্ধ।

গতকাল রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলা শহরের জামতলা চাঁদনী হল ও পাবলিক হল মোড়ে ওই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধরা হলেন- পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তাজমুন, হৃদয়, নাঈম, বিপুল, মোস্তাক ও তারা মিয়া। 

স্থানীয়দের উদ্ধৃতি দিয়ে গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আহাদ খান ও ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন কর্মকর্তা রেজাউল করিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সাম্প্রতিক সময়ে উপজেলা সদর সংলগ্ন ব্রহ্মপুত্র নদের বালুমহালের দখল ছিল পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তাজমুনের হাতে। গতকাল সন্ধ্যায় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কাউসার ও ছাত্রলীগের সভাপতি সানিলের নেতৃত্বে আরো বেশ কয়েক নেতাকর্মী তাজমুনের কাছে বালুমহালের টাকা-পয়সার ভাগবাটোয়ারার হিসাব নিতে চাঁদনী হল মোড়ে যান। সে সময় দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

পরবর্তী সময়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে জামতলা মোড়ে আড্ডা দেওয়ার সময় ওই কথা কাটাকাটির জেরে তাজমুন ও তাঁর কর্মীদের ওপর হামলা চালায় কাউসার ও সানিলের সমর্থকরা। সে সময় তাজমুনসহ তাঁর পক্ষের বিপুল, মোস্তাকিম, হৃদয়, নাঈম ও তারা মিয়া গুলিবিদ্ধ হন। এ ছাড়া  আহত হন আরো চারজন।

পরে স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভি ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরবর্তী সময়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাজমুন, বিপুল, মোস্তাকিম, হৃদয় ও তারা মিয়াকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

Advertisement