Beta

ওয়াসার পানি পরিষ্কার হওয়া জরুরি : বাণিজ্যমন্ত্রী

৩০ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। ছবি : এনটিভি

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, ‘ওয়াসার কাছ থেকে আমরা সবাই পানি কিনে খাই। এ পানি পরিষ্কার ও খাবারযোগ্য হওয়া জরুরি। তবে বিষয়টি দেখার জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় ও সংস্থা রয়েছে। তাদের উচিত বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা।’

আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওই কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী। বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস উপলক্ষে ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

ওয়াসার পানির মান ও ওয়াসার এমডিকে একজন ভোক্তার শরবত পান করানোর কর্মসূচি সম্পর্কে বাণিজ্যমন্ত্রীর মতামত জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘ওয়াসার এমডিকে ওয়াসার পানি দিয়ে শরবত পান করানোর কর্মসূচি সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে বেশ আলোচিত ঘটনা। আমাদের সবাইকে এ ঘটনাটি বেশ নাড়া দিয়েছে। বিষয়টিকে হালকাভাবে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আমি আশা করছি সংশ্লিষ্টরা বিষয়টি বেশ গুরুত্বের সাথে নিয়ে ওয়াসার পানিকে পরিষ্কার ও খাবারযোগ্য করে সরবরাহ করবেন।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘ভোক্তরা সচেতন হলে সেবা সংস্থা এবং সেবাদাতা সবাই সচেতন হয়ে যাবেন। ক্রেতাদের কাছ থেকে ভোক্তা বা ক্রেতারা যাতে দাম দিয়ে উপযুক্ত জিনিসটি নিতে পারেন সে জন্যই জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদ্প্তর নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

টিপু মুনশি আরো বলেন, ‘৬৪ জেলায় জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কমিটি, উপজেলাগুলোতে উপজেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কমিটি এবং ৪ হাজার ৪৫০টি ইউনিয়ন পরিষদে ইউনিয়ন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কমিটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এসব কমিটির কাছে কেউ অভিযোগ করলে বিক্রেতাদের কাছ থেকে জরিমানা আদায় করে ক্ষত্রিগ্রস্ত ক্রেতাদের প্রদান করা হয়। কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হলে যেকোনো দোকানদারের বিরুদ্ধে ৩০ দিনের মধ্যে অভিযোগ দায়ের করতে পারবেন। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ভোক্তাদের এ অধিকার দেওয়া হয়েছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘ক্রেতারা যাতে প্রতারিত না হন এই জন্যই সিটি করপোরেশনসহ প্রত্যেকটি বাজারে দোকানদারদের জন্য দোকানের সামনে পণ্যের বিক্রয়মূল্য লিখে তালিকা টানানোর বিধান করা হয়েছে।’ কোনো দোকানের সামনে পণ্যের তালিকা দেখা না গেলে অধিদপ্তরে অভিযোগ করার জন্য ক্রেতাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

Advertisement