Beta

ঘূর্ণিঝড় ফণী : মোংলা বন্দরে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত

০১ মে ২০১৯, ২০:৫২

ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ ক্রমেই শক্তি সঞ্চার করে উপকূলের দিকে এগিয়ে আসতে থাকায় বাগেরহাটের মোংলা সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

ঘূর্ণিঝড়টি বর্তমানে মোংলা থেকে প্রায় ১ হাজার ৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে পশ্চিমমধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে উত্তর/উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এর প্রভাবে বুধবার দুপুর ১২টা থেকে মোংলাসহ সংলগ্ন সাগর ও সুন্দরবন উপকূলীয় এলাকার ওপর দিয়ে হালকা থেকে মাঝারি ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে শুরু করলেও বিকেলের দিকে আকাশ রোদ্রজ্জ্বল ছিল। ঘূর্ণিঝড় ফণী আঘাত হানার আশঙ্কায় সর্তকতা ও প্রস্তুতি গ্রহণ কার্যক্রম শুরু করেছে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ, পৌর কর্তৃপক্ষ ও উপজেলা প্রশাসন।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে বুধবার বিকেল ৫টায় জরুরি বৈঠক ডাকা হয়। এতে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পবির্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এবং স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে ঘূর্ণিঝড়কালীন প্রয়োজনীয় প্রস্তুতির সব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

মোংলা উপজেলা প্রকল্প ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মো. নাহিদুজ্জামান বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে এবং যারা ছুটিতে আছেন আগামীকাল বিকেলের মধ্যে কর্মস্থলে ফেরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মো. নাহিদুজ্জামান জানান, বৈঠকে জরুরি খাদ্য ও চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

৭৮টি আশ্রয়কেন্দ্র সার্বক্ষণিক খোলা রাখা হবে জানিয়ে নাহিদুজ্জামান বলেন, সিগন্যাল বাড়লে মসজিদে মসজিদে এবং হ্যান্ডমাইকে সতর্কতামূলক ঘোষণা দেওয়া হবে।

মোংলা বন্দর পৌরসভার মেয়র মো. জুলফিকার আলী বলেন, ফণীর আঘাতের আশঙ্কা মাথায় রেখে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। দুপুরের পর থেকে পৌরসভার সব ওয়ার্ডে মাইকিং করে জনসাধারণকে সতর্ক থাকার জন্য প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার দুরুল হুদা বলেন, বন্দরে অবস্থানরত বিদেশি জাহাজসহ নৌযানগুলোকে সতর্কতাবস্থায় থাকার নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়টি মনিটরিং করা হচ্ছে। এছাড়া বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ কিংবা সচল রাখার বিষয়ে বৃহস্পতিবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে সব প্রস্তুতি এখন থেকেই নেওয়া হচ্ছে।

Advertisement