Beta

ফেসবুকে নম্বর পেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ফোন, পেলেন উপহার

১৫ মে ২০১৯, ১৪:১২ | আপডেট: ১৫ মে ২০১৯, ১৫:৪০

ফোন করেছিলেন একটি নম্বরে। সেটা ধরেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নিজের এই দারুণ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন ডালিম। ছবি : এনটিভি

নেত্রকোনার দরিদ্র রিকশাচালক মো. ডালিম। ফেসবুকের কোথাও হয়তো পেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রীর ফোন নম্বর। সেই নম্বর ভুল না সঠিক, তা নিয়েও ছিল সংশয়। অনেকটা ভাগ্যের ওপর নির্ভর করে সাহস নিয়েই ফোন দেন ওই নম্বরে। কিন্তু ভাগ্য ডালিমকে হতাশ করেনি। তাঁকে অবাক করে দিয়ে ফোন ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দরিদ্র রিকশাচালকের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। জানতে চান তাঁর অসহায়ত্বের কথা।

গত রোববার এই দরিদ্র রিকশাচালক ডালিমের জীবনে ঘটে যায় এমন ঘটনা। নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার বৃ-কালিকা গ্রামের মৃত আবদুর রাজ্জাকের ছেলে তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফোন দিতেই তিনি যখন ফোন ধরেন, জানতে চান পরিচয়। ডালিম প্রধানমন্ত্রীকে জানান, তিনি নেত্রকোনার বারহাট্টার একজন দরিদ্র রিকশাচালক। অভাবের সংসার তাঁর। বউ-বাচ্চা নিয়ে কষ্টেই জীবনযাপন করছেন তিনি।

গতকাল মঙ্গলবার নিজের এই অভিজ্ঞতার কথা সাংবাদিকদের জানালেন ডালিম। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কী কথা হলো তা-ও জানিয়েছেন তিনি।

কেমন লাগছে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে—এ কথা জানতে চাইলে ডালিম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা কইয়া বিরাট খুশি হইসি।’

ডালিম আরো জানান, অনেক আগে থেকেই আওয়ামী লীগ সমর্থন করে আসছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী ডালিমকে জিজ্ঞাসা করেন, তাঁর কোনো সাহায্যের প্রয়োজন কি না। ডালিম প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি ইজিবাইক ও একটি গাভী চান। প্রধানমন্ত্রীও তাঁকে সাহায্য করার আশ্বাস দেন।

ডালিমের বিস্তারিত পরিচয় জানতে নেত্রকোনার জেলা প্রশাসককে দায়িত্ব দেওয়া হয়। জেলা প্রশাসক খুঁজে বের করেন ডালিমকে। এরপর গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ চত্বরে জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম আনুষ্ঠানিকভাবে ডালিমের কাছে ইজিবাইক ও গাভী হস্তান্তর করেন।

এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান মাঈনুল হক কাসেম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াসমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুর রহমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিয়া অমুল বানিন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার শাহ্ মোহাম্মদ আবদুল কাদের, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সাবেক উপসহকারী পরিচালক (ডিএডি) মুক্তিযোদ্ধা নূর উদ্দিন ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

বারহাট্টা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফরিদা ইয়াসমিন জানান, উপজেলা সদরের বৃ-কালিকা গ্রামের হতদরিদ্র রিকশাচালক মো. ডালিম গত রোববার রাতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে তাঁর জীবন-সংগ্রামের কাহিনী তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর কথা শোনেন। ডালিম প্রধানমন্ত্রীর কাছে ইজিবাইক ও গাভী চান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে গতকাল ডালিমকে ৬৮ হাজার টাকার ইজিবাইক ও ৭০ হাজার টাকা মূল্যের গাভী ও হাতে পাঁচ হাজার টাকা দেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে জেলা প্রশাসক আনুষ্ঠানিকভাবে ডালিমের হাতে এগুলো তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এসব উপহার পেয়ে নিজের খুশি আটকে রাখতে পারেননি এই দরিদ্র রিকশাচালক।

 গতকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার তুলে দেওয়া হয় নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার রিকশাচালক মো. ডালিমের হাতে। ছবি : এনটিভি

Advertisement