Beta

নওগাঁয় টেক্সাসের ‘বাদশাহ’

০৭ আগস্ট ২০১৯, ১২:৪২

নওগাঁর রাধাকান্ত হাটে গতকাল মঙ্গলবার বিক্রির জন্য তোলা হয় টেক্সাসের ব্রাহমান জাতের ‘বাদশাহ’ নামক গরুটি। ছবি : এনটিভি

নওগাঁর আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারের রাধাকান্ত হাটে গতকাল মঙ্গলবার বিক্রির জন্য তোলা হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের ব্রাহমান জাতের একটি গরু। মালিক সেলিম রেজা ডালিম শখ করে এই গরুর নাম রেখেছেন ‘বাদশাহ’। বিশালদেহী এ বাদশাহকে দেখার জন্য হাটে উপচেপড়া ভিড় লেগেছে। সেলিম রেজা ডালিম পেশায় ধান-চালের ব্যবসায়ী। পাশাপাশি গড়ে তুলেছেন গরুর খামার। তার খামারে ব্রাহমান জাতের ১১টিসহ মোট ৪০টি গরু আছে। এ মুহূর্তে বিক্রির জন্য প্রস্তুত আছে দুটি ব্রাহমান জাতের গরু।

সেলিম রেজা ডালিম জানান, গরুটির বয়স মাত্র ২৮ মাস, ওজন প্রায় ২০ মণ। গরুটি থেকে ৬০০ কেজি (১৫ মণ) মাংস পাওয়া যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। নওগাঁর রাধাকান্ত হাটে বিক্রির জন্য নিয়ে আসা ব্রাহমান জাতের গরুর দাম হাঁকা হচ্ছে আট লাখ টাকা। গতকাল মঙ্গলবার সারা দিন এই গরুর দাম তিন লাখ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত উঠেছে। কিন্তু এ দামে গরুটি ছাড়তে নারাজ সেলিম রেজা। শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবার রাতে ‘বাদশাহ’ ফিরে গেছে তার শেডে।

এক প্রশ্নের উত্তরে সেলিম রেজা ডালিম জানান, প্রতিদিন ব্রাহমান জাতের এই গরু পালনে ৩৫০ থেকে ৪০০ টাকা খরচ হয়। নেপিয়ার ঘাস, শুকনো খড়, খুদের ভাতই প্রতিদিনের খাবার। বিশেষ যত্নে রাখতে হয়। দু-তিনজন শ্রমিক প্রতিদিন এই গরুর পরিচর্যার দায়িত্বে থাকেন।

ঈদুল আজহার আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। নওগাঁর বাজারে না বেচতে পারলে কী করবেন—এমন প্রশ্নের উত্তরে গরুর মালিক সেলিম রেজা ডালিম জানান, এই ঈদে তাঁর শখের বাদশাহকে বিক্রি করতে না পারলে আরো এক বছর লালন-পালন করবেন। খামারে রেখে দেবেন। বিক্রি নিয়ে তাঁর বিশেষ কোনো দুশ্চিন্তা নেই বলে জানান সেলিম রাজা।

Advertisement