Beta

সারা দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন

১২ আগস্ট ২০১৯, ২১:৪৬

অনলাইন ডেস্ক
রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় শেষে দুই শিশুর কোলাকুলি। ছবি : ফোকাস বাংলা

সারা দেশে যথাযথ ভাবগাম্ভীর্য আর আনন্দ-উৎসাহের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল আজহা। আজ সোমবার ঈদের দিন সকালে নামাজ আদায় শেষে মুসল্লিরা দেশ, জাতি ও মুসলিম জাহানের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন। তারপর একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি করে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় দেশের ধর্মপ্রাণ কোটি মানুষ ঈদগাহ, মসজিদ ও খোলা মাঠে ঈদের নামাজ আদায় করেন। রাজধানীতে আজ সকাল ৭টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে প্রথম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সকাল ৮টায় আরেকটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। 

ঈদুল আজহার প্রধান জামাত জাতীয় ঈদগাহে সকাল ৮টায় শুরু হয়। এ জামাতে রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রিসভার সদস্য, কূটনৈতিকসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা নামাজ আদায় করেন। পরে তাঁরা একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি করে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের জ্যেষ্ঠ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।

নামাজ আদায় শেষে বাসায় ফিরে মহান আল্লাহর অপার অনুগ্রহ লাভের আশায় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা সামর্থ্য অনুযায়ী পশু কোরবানি করেন।

এদিন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বঙ্গভবনে সর্বস্তরের জনগণের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলীয় নেতাকর্মী, বিচারক, বিদেশি কূটনীতিকসহ সর্বস্তরের জনগণের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সরকারি-বেসরকারি ভবন ও বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোয় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। এ ছাড়া ‘ঈদ মোবারক’ লিখিত ব্যানার ঢাকা মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ ট্রাফিক আইল্যান্ড ও লাইটপোস্টে প্রদর্শিত হচ্ছে। পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সরকারি ভবন ও গুরুত্বপূর্ণ সামরিক স্থাপনাগুলোতে আলোকসজ্জা করা হয়।

ঢাকার বাইরে ঈদুল আজহার খবর জানাচ্ছেন আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিরা :

আরিচ আহমেদ শাহ, চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামের জাতীয় মসজিদ জমিয়তুল ফালাহ ময়দানে সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে প্রথম জামাত ও একই স্থানে সকাল পৌনে ৯টায় দ্বিতীয় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম জামাতে ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মো. আহমুদুল হক। দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করেন মাওলানা ছালেকুর রহমান আলকাদেরী।

প্রথম জামাতে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মীর মো. নাছির উদ্দিন, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সোলেমান আলম শেঠসহ অনেকে নামাজ আদায় করেন।

এ ছাড়া কেন্দ্রীয় ঈদ জামাত কমিটির ব্যবস্থাপনায় নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে সকাল ৮টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। পাশাপাশি নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের ১৬৪টি স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

মুহাম্মদ আবু তৈয়ব, খুলনা : ঈদুল আজহা উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সরকারি ও বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। মহানগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও সড়কদ্বীপ বাংলা ও আরবিতে ঈদ মোবারক খচিত ব্যানারে সজ্জিত করা হয়। ঈদের জামাত টাউন জামে মসজিদে সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়। এ বিশাল জামাতে ইমামতি করেন খুলনা টাউন জামে মসজিদের ভারপ্রাপ্ত খতিব আলহাজ মাওলানা আবু দাউদ।

এ ছাড়া কোর্ট জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায় একটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ঈদের জামাতে খুলনার বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া, বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক সাংসদ নজরুল ইসলাম মঞ্জু, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশগ্রহণ করেন। নামাজ শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে মুসল্লিরা পরস্পর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

মঈনুল হক বুলবুল, সিলেট : সিলেট নগরীতে লাখো মানুষ আদায় করেছেন পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ। নামাজে মুসল্লিরা অশ্রুভেজা কণ্ঠে ক্ষমা চান মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে। পাশাপাশি দেশ ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করেন তাঁরা।

সিলেটে সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় ঐতিহাসিক শাহী ঈদগাহ ময়দানে। সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত ওই ঈদগাহে এক সঙ্গে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতাসহ কয়েক হাজার মুসল্লি ঈদের নামাজ আদায় করেন।

এ ছাড়া দরগাহে হজরত শাহজালাল (রহ.) জামে মসজিদে ঈদের জামাত হয় সকাল ৮টায়। প্রধান এ দুটি স্থান ছাড়াও নগরীর একাধিক ঈদগাহ, মাদ্রাসা মাঠ ও মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট কালেক্টরেট জামে মসজিদ, শেখঘাট শেখ ছানা উল্লাহ জামে মসজিদ, কালিঘাটস্থ নবাবী জামে মসজিদ ওয়াকফ এস্টেট, মাছিমপুরস্থ শেখ মৌলভী ওয়াকফ এস্টেট জামে মসজিদ, টিলাগড় শাহ মাদানী ঈদগাহ, পাঠানটুলা নবাবী শাহী ঈদগাহ ও পশ্চিম পীরমহল্লা জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ছাড়া বেশ কয়েকটি স্থানে একাধিক ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে নগরীর বন্দরবাজারস্থ হাজী কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে একাধিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আইয়ুব আলী, ময়মনসিংহ : সকাল ৮টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় নগরীর কেন্দ্রীয় আঞ্জুমান ঈদগাহ ময়দানে। এতে ইমামতি করেন কেন্দ্রীয় আঞ্জুমান ঈদগাহ মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা আব্দুল্লাহ আল মামুন। জামাতে সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ, বিভাগীয় কমিশনার খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান, সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু, জেলা পরিষদের প্রশাসক অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও শহরের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ঈদের নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির শান্তি ও সমৃদ্ধ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এ ছাড়াও শহরের বড় মসজিদ, আকুয়া মার্কাজ মসজিদ, চরপাড়া জামিয়া ইসলামিয়া, পুলিশ লাইন জমে মসজিদ, কেওয়াটখালী ঈদগাহ মাঠ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদসহ বিভিন্ন মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। জেলার ১৩টি উপজেলায় ২১৫৯টি স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতে মোকাবিলায় প্রতিটি ঈদগাহে বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োজিত ছিল।

নাসির আহমেদ, গাজীপুর : সকাল ৮টায় ভাওয়াল রাজবাড়ী মাঠের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে জেলার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন গাজীপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মো. কামরুল হাসান। প্রধান ঈদ জামাতে গাজীপুর-২ আসনের সাংসদ জাহিদ আহসান রাসেল, সিটি করপোরেশনের মেয়র আলহাজ মো. জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রশাসক তরিকুল ইসলাম ছাড়াও জেলার ঊর্ধ্বতন সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা ও বিভিন্ন পেশাজীবী অংশ নেন। এ ছাড়া গাজীপুরের বিভিন্ন উপজেলায় অর্ধশতাধিক বড় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শিহাব উদ্দিন বিপু, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : সকাল সোয়া ৮টায় জেলা জামে মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। জামাতে ইমামতি করেন মাওলানা নোমন আল হাবিবী। এতে জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সমাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। এ ছাড়াও টেংকের পাড় জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়, শেরপুর ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে ৮টায় এবং সুহিলপুর ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায়সহ জেলার ৮৩২টি স্থানে পবিত্র ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরে মহান আল্লাহকে খুশি করতে পশু কোরবানি করা হয়।

নাফিজ আশরাফ, নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জে লাখো মুসল্লির অংশগ্রহণে বিশাল ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে নগরের জামতলা শামসুজ্জোহা স্টেডিয়াম ও সিটি করপোরেশন ঈদগাহ ময়দানে। সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদুল আজহার এই জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে অংশগ্রহণ করেন নারায়ণগঞ্জ-৪  আসনের সাংসদ শামীম ওসমান, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদসহ বিশিষ্টজনরা।

সঞ্জিব দাস, ফরিদপুর : যথাযোগ্য ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে ফরিদপুরে পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে শহরের চাঁদমারী কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৮টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ঈদের প্রধান জামাতে শরিক হয়ে নামাজ আদায় করেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ফরিদপুর সদর আসনের সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন। নামাজের আগে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ফরিদপুর পৌরসভার মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. ইমতিয়াজ হাসান রুবেল প্রমুখ। এ সময় রাজনীতিবিদ, সমাজসেবক ও সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের কর্মকর্তা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ঈদের নামাজ আদায় করেন।

এদিকে, ফরিদপুর পুলিশ লাইন্স ময়দান, অম্বিকা ময়দান, আলীপুর কবরস্থান জামে মসজিদসহ জেলার সব স্থানে বিপুল সংখ্যক মুসল্লির উপস্থিতিতে  শান্তিপূর্ণভাবে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

শাহজাহান সিরাজ মিঠু, জয়পুরহাট : ঈদুল আজহার নামাজের প্রধান জামাত সকাল ৮টায় জয়পুরহাট কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ নামাজে ইমামতি করেন জয়পুরহাট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আবুল কালাম সামসুদ্দিন। জয়পুরহাটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন, পুলিশ সুপার মো. সালাম কবির, জয়পুরহাট পৌরসভার মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাকসহ আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন দলের নেতৃবৃন্দ একসঙ্গে ঈদের নামাজ আদায় করেন। 

রফিকুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা : জেলার সাত শতাধিক ঈদগাহ ময়দান ও মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় ২৫১, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ২৩৯, দামুড়হুদা উপজেলায় ১২৯ ও জীবননগর উপজেলায় ৯৭টি ঈদ জামাত অনষ্ঠিত হয়। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সাংসদ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন পৌর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খোন্দকার ফরহাদ আহমদ ভি জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এবং পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পুলিশ লাইন্স ময়দানে নামাজ আদায় করেন।

পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, জেলার সাত শতাধিক ঈদগাহ ময়দান ও মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হলেও কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

বিশ্বজিৎ সাহা, নরসিংদী : বিপুল উৎসাহ, উদ্দীপনা আর কুশল বিনিময়ের মধ্য দিয়ে নরসিংদীতে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা। সকাল থেকেই বিভিন্ন বয়সের মানুষ ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে ঈদগাহে মিলিত হয়। সকাল ১০টায় নরসিংদীর মনোহরদীর গোতাশিয়া ঈদগাহ ময়দানে ঈদের নামাজ আদায় করেন শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। নামাজ শেষে মন্ত্রী সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে কুশলাদি বিনিময় করেন।

এ ছাড়া নরসিংদী শহরের গাবতলী ঈদগাহ ময়দানে ঈদের নামাজ আদায় করেন সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম। এ ছাড়া জেলা কালেক্টরিয়েট মসজিদে নামাজ আদায় করেন জেলা ও পুলিশ  প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

ভজন দাস, নেত্রকোনা : জেলায় এবার ১ হাজার ৭৩০টি ঈদগাহ ময়দান ও মসজিদে ঈদুল  আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের প্রধান ও প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয় জেলা শহরের মোক্তারপাড়া বড় জামে মসজিদে। এ ছাড়া সকাল সাড়ে ৯টায় ঈদের দ্বিতীয় জামাত শহরের সাতপাই, এন আকন্দ আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ, কলেজ মাঠ, নাগড়া ঈদগাহ ময়দান, পুলিশ লাইন্স, বিজিবি ক্যাম্প ও থানা মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জেলার ১০ উপজেলা সদরসহ গ্রামাঞ্চলে অনুরুপভাবে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এম. মুনীর চৌধুরী, নড়াইল : নড়াইল কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৭টায় ঈদুল আজহার প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নড়াইল কেন্দ্রীয় পৌর ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও বৃষ্টির কারণে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নড়াইল কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার (তদন্ত) এ. এফ. এম. আমিনুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আশরাফ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কাজী মাহবুবুর রশীদ, সিভিল সার্জন ডা. আসাদ-উজ জামান মুন্সিসহ সর্বস্তরের মুসল্লিরা ঈদের জামাতে শরিক হন। ঈদের প্রথম জামাতে ইমামতি করেন নড়াইল কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা  ম. ম. শফিউল্লাহ। এ ছাড়াও জেলার ৫১৯টি ঈদগাহ ও মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

দেওয়ান গিয়াস চৌধুরী, সুনামগঞ্জ : জেলার প্রধান ঈদের জামাত সকাল ৮টায় সুনামগঞ্জ পুরাতন কোর্ট কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নামাজে ইমামতি করেন কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা হাফিজুর রহমান। জামাতে নামাজ আদায় করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিছবাহ, হাইকোর্টের বিচারপতি মিফতা উদ্দিন চৌধুরী রুমি, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিশিষ্ট নাগরিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের ব্যক্তিবর্গ। এ ছাড়াও সকাল সাড়ে ৮টায় শহরের আরো ১৬টি ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

 

রাজধানীর জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় শেষে দুই শিশুর কোলাকুলি। ছবি : ফোকাস বাংলা

Advertisement