Beta

ব্যবসায়ীর বাসায় ডাকাতি, স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মীসহ আটক ৪

১৭ আগস্ট ২০১৯, ০৯:৪৪ | আপডেট: ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১১:৩১

খাগড়াছড়ির রামগড় এলাকায় ডাকাতির ঘটনায় জব্দকৃত টাকা, স্বর্ণালংকারসহ আটক হওয়া চারজন। ছবি : এনটিভি

খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলার কমপাড়া এলাকায় চাল ব্যবসায়ী মো. ইউছুফের বাসায় ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে স্বেচ্ছাসেবক লীগের এক কর্মীসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার। গতকাল শুক্রবার ভোরের দিকে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

আটককৃতরা হলেন- স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী ও পৌরসভার তৈচালাপাড়ার নজরুল ইসলাম (৩৯), নোয়াখালীর সুধারাম থানার পশ্চিম শুলকিয়া এলাকার শাহ আলম ওরফে টুকু (৩৫), চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার মালিয়াইশ গ্রামের ধনগাজী মাঝিবাড়ির নুরুন্নবী ওরফে নাজিম উদ্দিন (৩২) ও রামগড় উপজেলার তৈচালাপাড়ার নুরল ইসলাম ওরফে নুর ইসলাম (৩৫)।

তবে, ডাকাতির ঘটনায় আটক হওয়া নজরুল ইসলাম দলীয় অনুমোদিত কোনো কমিটির পদে নেই বলে জানিয়েছেন রামগড় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রাসেল ফরাজি।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাত ৩টার দিকে ডাকাতরা কমপাড়ায় চাল ব্যবসায়ী মো. ইউছুফের বাসায় হানা দেয়। বাসার পিছনের একটি দরজার লকার ভেঙে তারা ভিতরে ঢুকে পড়ে। এ সময় গৃহকর্তা ইউছুফকে হত্যার হুমকি দিয়ে আলমারির চাবি নিয়ে নেয় ডাকাতদল। পরে তারা নগদ প্রায় তিন লাখ টাকা, সাত ভরি স্বর্ণালংকার ও চারটি মোবাইল ফোনসেট লুটে নেয়।

ডাকাতি করে পালানোর সময় এলাকার পাহারাদারদের নজরে এলে তাঁরা ডাকাতদের ধাওয়া করে। খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে ডাকাতদের ধরতে সাঁড়াশি অভিযানে চালায়।

রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈয়দ মো. ফরহাদের নেতৃত্বে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারেক মো. আব্দুল হান্নান সোনাইপুল বাজার এলাকা থেকে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে শাহ আলম, নাজিম ও নুর ইসলামকে আটক করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ডাকাতির নগদ দুই লাখ ৫৭ হাজার টাকা ও ১৩টি স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়। পরে আটকদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, তৈচালাপাড়ার বাসা থেকে নজরুল ইসলামকে আটক করে পুলিশ।

‘আটককৃতরা আন্তজেলা ডাকাতদলের সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক ডাকাতির মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অন্যদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে’, যোগ করেন রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

এদিকে ডাকাতির ঘটনায় মো. ইউছুফ বাদী হয়ে রামগড় থানায় একটি মামলা করেছেন।

Advertisement