Beta

এসএমই খাতকে অর্থ, প্রযুক্তি ও বাজার সুবিধা দিতে নীতিমালা অনুমোদন

০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৫৪

ইউএনবি
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার তাঁর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : পিআইডি

দেশের ৭৮ লাখের মতো এসএমই প্রতিষ্ঠানকে অর্থ, প্রযুক্তি ও বাজার সুবিধা দেওয়ার লক্ষ্যে সোমবার ‘এসএমই নীতিমালা ২০১৯’-এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তাঁর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ এসএমই নীতিমালা ২০১৯ থেকে ২০২৪ সালের জুনের মধ্যে বাস্তবায়ন করা হবে। এসএমই খাতে প্রায় ৭৮ লাখ মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠান আছে। এবং জিডিপিতে এ খাতের অবদান ২৫ শতাংশ।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, এ নীতিমালা এসএমই উদ্যোক্তাদের জন্য ছয়টি বিষয় নিশ্চিত করবে। এগুলো হলো- অর্থ, প্রযুক্তি, উদ্ভাবন, বাজার, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ, ব্যবসায় সহযোগিতা ও তথ্য সুবিধা পাওয়া। তিনি বলেন, নীতিমালা বাস্তবায়নের জন্য শিল্পমন্ত্রীর নেতৃত্বে ৩৭ সদস্যবিশিষ্ট এবং শিল্প সচিবকে প্রধান করে ২৯ সদস্যের দুটি কমিটি থাকবে।

নীতিমালার কৌশলগত উদ্দেশ্যের মধ্যে আছে গ্যারান্টি তহবিল চালু, সহজ শর্তে ঋণ দেওয়া, নতুন ধরনের ব্যবসায় সহায়তা, ব্যবসা শুরুর প্রক্রিয়া সহজ করা, নারী উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ ঋণ ও অন্যান্য সুবিধা দেওয়া, এসএমইদের বিষয়ে ডাটা সার্ভার তৈরি এবং পরিবেশবান্ধব শিল্প স্থাপনে এসএমইদের উৎসাহিত করা।

এ ছাড়া, মন্ত্রিসভা বিদ্যমান বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন অধ্যাদেশ ১৯৭২-এ কিছু ছোটখাট পরিবর্তন এনে নীতিগতভাবে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন বিল ২০১৯-এর খসড়া অনুমোদন করেছে।

‘বিলটিতে বড় ধরনের কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি,’ বলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

নতুন বিল অনুযায়ী, করপোরেশনের পরিশোধিত মূলধন ৫০০ কোটি টাকা এবং অনুমোদিত মূলধনও ৫০০ কোটি টাকা।

করপোরেশনের পরিচালনা পর্ষদে বর্তমানের পাঁচ সদস্যের জায়গায় ছয় সদস্য থাকবে। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের একজন যুগ্ম সচিব এতে পার্টটাইম পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পাবেন। 

মন্ত্রিসভা ৪ ডিসেম্বরকে জাতীয় বস্ত্র দিবস ঘোষণা এবং প্রতি বছর তা পালনের একটি প্রস্তাবও অনুমোদন করেছে।

বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. নাইয়ুম চৌধুরীর মৃত্যুতে মন্ত্রিসভা গভীর শোক প্রকাশ করে।

Advertisement