Beta

‘এক বছরে ১৯ বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ’

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:১৮

নওগাঁ-১৬ বিজিবি হেডকোয়ার্টারে গতকাল মঙ্গলবার রাতে সাংবাদিকদের সঙ্গে পরিচিতি সভায় বক্তব্য দেন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তুহিন মো. মাসুদ। ছবি : এনটিভি

নওগাঁর সীমান্ত এলাকায় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের (বিএসএফ) হাতে কোনো হত্যার ঘটনা না ঘটলেও গত এক বছরে তারা ১৯ বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ীকে ধরে নিয়ে গেছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে নওগাঁ ১৬ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের (বিজিবি) হেডকোয়ার্টারে সাংবাদিকদের সঙ্গে পরিচিতি সভায় অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তুহিন মো. মাসুদ এসব তথ্য দেন।

অধিনায়ক আরো জানান, ১৯ জনের মধ্যে সাতজনকে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিজিবি দেশে ফেরত আনতে সক্ষম হলেও বাকি ১২ জনকে ফেরত দেয়নি বিএসএফ। অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে তাঁরা ভারতের কারাগারে রয়েছেন।

এদিকে, সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারত থেকে পাচার হয়ে বাংলাদেশে আসার সময় ৮১০ গ্রাম স্বর্ণ, চার হাজার বোতল নিষিদ্ধ ফেনসিডিল, ২১ কেজি গাঁজা, ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত বিষয়ে বিভিন্ন থানায় বেশ কয়েকটা মামলাও দায়ের করা হয়েছে বলে জানান তুহিন মো. মাসুদ। সবশেষে বিভিন্ন অপারেশন সংবাদ, সীমান্তে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনার সংবাদ প্রচারসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

সাংবাদিকদের সঙ্গে পরিচিতি সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন ১৬ বিজিবির উপ-অধিনায়ক মো. আহসান হাবিব, নওগাঁ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. নবির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নাছিমুল হক বুলবুল, বাসস ও চ্যানেল আইয়ের প্রতিনিধি মো. কায়েস উদ্দিন, এনটিভি ও আমাদের সময়ের স্টাফ করেসপনডেন্ট আসাদুর রহমান জয়, বাংলাদেশ বেতারের প্রতিনিধি শেখ আনোয়ার হোসেন, দৈনিক কালের কণ্ঠের প্রতিনিধি ফরিদুল করিম, দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিনিধি এমদাদুল হক সুমন, এসএ টিভির প্রতিনিধি মামুনুর রশীদ বাবু, এটিএন বাংলার প্রতিনিধি এ এস এম রায়হান আলম, বাংলাভিশনের প্রতিনিধি বেলায়েত হোসেন, ডিবিসি নিউজের প্রতিনিধি এ কে সাজু প্রমুখ।

Advertisement