Beta

ভৈরবে ইলিশ বিক্রির দায়ে তিন ব্যবসায়ীকে জরিমানা

০৯ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:২৭

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে জব্দকৃত ইলিশ মাছ বিভিন্ন এতিমখানায় দেওয়া হয়। ছবি : এনটিভি

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ মাছ বিক্রির অপরাধে কিশোরগঞ্জের ভৈরবে তিন ব্যবসায়ীকে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন ভ্র্যাম্যমাণ আদালত। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৭৫ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়।

ভৈরব উপজেলা মৎস্য বিভাগ জানায়, আজ বুধবার সকালে শহরের চণ্ডীবের পুংকু মিয়ার বাজারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লুবনা ফারজানার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালান। এ সময় ইলিশ মাছ বিক্রির অপরাধে নূরু মিয়া, আরশ মিয়া ও গোলাপ মিয়া নামের তিন মৎস্য ব্যবসায়ীর প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। এ সময় ৭৫ কেজি ওজনের ১০৪টি ইলিশ মাছ জব্দ করা হয়।

পরে জব্দকৃত ইলিশ শহরের চণ্ডীবের হাজী আসমত আলী এতিম শিশু পরিবার, জোবায়দা ওয়াজির এতিমখানা, লক্ষ্মীপুর মাদ্রাসা ও এতিমখানা, কালিপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা এবং উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের ছনছাড়া এতিমখানায় দেওয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লুবনা ফারজানা ব্যবসায়ীদের সতর্ক করে বলেন, ‘মা ইলিশ রক্ষায় সবাইকে আইন মেনে চলতে হবে। তা না হলে আমরা ইলিশ পাব না। কেউ যদি আইন অমান্য করে মাছ ধরা, বিক্রি, মজুদ ও পরিবহন করে থাকে তাহলে তাকে জেল অথবা জরিমানার সম্মুখীন হতে হবে।’

ভৈরব নৌপুলিশের সহযোগিতায় পরিচালিত ওই ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মো. লতিফুর রহমান, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মেহেদি হাসান ও স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর মো. আওলাদ হোসেন সওদাগর।

এদিকে আজ ৯ অক্টোবর বুধবার থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত দেশব্যাপী ইলিশ ধরা, বিক্রি, মজুদ ও পরিবহনের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মৎস্য অধিদপ্তর।

Advertisement