Beta

উগান্ডায় ব্র্যাকের ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু

২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৩১

অনলাইন ডেস্ক

উগান্ডায় একটি ব্যাংকের কার্যক্রম শুরু করেছে বিশ্বের বৃহত্তম বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক। উগান্ডাসহ আফ্রিকার পাঁচটি দেশে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে ব্র্যাক।

দেশটিতে এর আগে ‘ব্র্যাক-উগান্ডা মাইক্রোফাইন্যান্স লিমিটেড’ নামে যে কার্যক্রম পরিচালনা করছিল, তাই এখন থেকে ‘ব্র্যাক-উগান্ডা ব্যাংক লিমিটেড (বিইউবিএল)’ নামে উগান্ডার একটি পূর্ণ তফসিলি ব্যাংক হিসেবে পরিচালিত হবে।

আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় রাজধানীর কাম্পালায় এই ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উগান্ডার ফার্স্ট ডেপুটি প্রাইম মিনিস্টার ও দেশটির সরকারি কার্যক্রম বিষয়ক সংসদীয় উপনেতা জেনারেল মোজেস আলী। ব্র্যাকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানানো হয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উগান্ডার বিনিয়োগ ও ব্যক্তিমালিকানায় অর্থায়ন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এভিলিন এনিটে কাজিক, বিইউবিএলের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারপারসন বিচারপতি অগাস্টাস কানিয়া, ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক ডা. মুহাম্মাদ মুসা, ব্র্যাক ইন্টারন্যাশনালের নির্বাহী পরিচালক ফারুক আহমেদ, ব্র্যাক মাইক্রোফাইন্যান্সের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা শামেরান আবেদসহ অন্যরা।

 উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথি জেনারেল মোজেস আলী বলেন, ‘ব্র্যাকের উন্নয়ন কার্যক্রমে নারী,  যুব ও গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর রয়েছে বিশেষ অগ্রাধিকার। উগান্ডার সরকারও দেশব্যাপী আর্থিক অন্তর্ভুক্তি প্রসারের লক্ষ্যে এই তিনটি জনগোষ্ঠীকে বিশেষ অগ্রাধিকার দিয়ে একটি সমন্বিত কৌশল প্রণয়ন করেছে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে কার্যক্রম পরিচালনাকারী ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড এবং বিইউবিএল এক প্রতিষ্ঠান নয়। বিইউবিএল ব্র্যাকের একটি আন্তর্জাতিক উদ্যোগ। এর আগে ‘ব্র্যাক-উগান্ডা মাইক্রোফাইন্যান্স লিমিটেড’ দেশটির সর্ববৃহৎ মাইক্রোফাইন্যান্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে ৮৪টি জেলার ১৬৩টি শাখার মাধ্যমে দুই লাখ গ্রাহককে সেবা দিয়ে আসছিল। এ বছরের ৭ মার্চে উগান্ডার কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে এই ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার লাইসেন্স পেয়েছে ব্র্যাক। এই অনুমোদনের আওতায় বিভিন্ন ধরনের ঋণসুবিধা ছাড়াও বিইউবিএল সঞ্চয়ী হিসাব, অর্থ প্রেরণ, বিমাসহ অন্যান্য আর্থিক সেবা দিতে পারবে। এই ব্যাংকের সেবাগ্রহীতাদের মূল অংশই হবেন নারী এবং নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠী।

এ প্রসঙ্গে ব্র্যাকের মাইক্রোফাইন্যান্স কর্মসূচির ঊর্ধ্বতন  পরিচালক শামেরান আবেদ বলেন, ‘ব্যাংকে রূপান্তরিত হওয়াই আমাদের মূল লক্ষ্য নয়, বরং এর মধ্য দিয়ে আমরা বৃহত্তর লক্ষ্য অর্জন করতে চাই। আমরা এতদিন উগান্ডার লাখ লাখ মানুষকে যে সেবা দিয়ে এসেছি, এর মাধ্যমে তার পরিধি আরো বাড়াতে পারব। এ ছাড়া আরো লাখ লাখ মানুষ, যাদের কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই, তাদেরকেও সেবার আওতায় নিয়ে আসতে পারব।’

ব্যাংকটির উদ্বোধন উপলক্ষে ব্র্যাক দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে, যেখানে ব্যাংকের কর্মী, সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধি, সেবাগ্রহীতা, নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রতিনিধি এবং অংশীদাররা উপস্থিত ছিলেন।

বিইউবিএলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জিমি আদিগা বলেন, ‘সব ব্র্যাককর্মীর জন্য এটা এমন এক পথ পরিক্রমা যেখানে আমাদের গভীর আবেগের বাস্তবায়ন ঘটেছে।’

ব্র্যাক ২০০৬ সাল থেকে উগান্ডায় নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠী এবং নারীদের জন্য আর্থিক সেবাসহ নারীর ক্ষমতায়ন, শিশু ও কিশোরীদের শিক্ষা, নারীর প্রতি সহিংসতারোধ, জীবিকা উন্নয়ন এবং কৃষিদক্ষতায় সেবা দিয়ে আসছে।

Advertisement