Beta

ব্যাংকারদের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাবান্ধব হওয়ার পরামর্শ গভর্নরের

১১ এপ্রিল ২০১৫, ১৮:২১

নিজস্ব প্রতিবেদক
বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

ব্যাংকারদের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাবান্ধব হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান। আজ শনিবার রাজধানীর মিরপুরে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) সভাকক্ষে এক কর্মশালায় এ কথা বলেন তিনি।
 
‘বাংলাদেশে এসএমই খাতে অর্থায়ন প্রসারে নীতি-নির্ধারক ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভূমিকা’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গভর্নর। তিনি বলেন, ‘আমরা বড় বড় উদ্যোক্তাদের জন্য অনেক কিছু করি। আসুন এখন ছোটদের জন্য কিছু করি। দেশে ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণকারীরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তায় উন্নীত হচ্ছে। এসব উদ্যোক্তাকে ঋণ দেওয়ার পাশাপাশি তারা যেন ঋণের টাকা প্রকৃত অর্থে কাজে লাগাতে পারে এ জন্য পরামর্শ দিতে হবে।’
 
বাসাস জানায়, বাংলাদেশ ব্যাংক ট্রেনিং একাডেমি (বিবিটিএ), বিআইবিএম ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের অর্থায়নপুষ্ট শিল্প মন্ত্রণালয়ের ‘বাংলাদেশ ইন্সপায়ারড’ প্রকল্প যৌথভাবে কর্মশালাটির আয়োজন করে।
 
বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমেদ চৌধুরী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. ফরহাদ উদ্দিন, বিবিটিএর ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক মো. গোলাম মোস্তফা ও বাংলাদেশ ইন্সপায়ারড প্রকল্পের টিমের প্রধান আলী সাবেত।
 
গভর্নর বলেন, ‘ঝুঁকিপূর্ণ অর্থায়ন থেকে সরে এসে উৎপাদনভিত্তিক অর্থায়নে জোর দেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রকৃত এবং বঞ্চিত উদ্যোক্তাদের ঋণসহায়তা প্রদানের চেষ্টা করছি।’
 
আতিউর রহমান আরো বলেন, ‘ব্যাংকের প্রতিটি শাখা থেকে বছরে অন্তত তিনজন নারী উদ্যোক্তা বাছাই এবং অন্তত একজন নারী উদ্যোক্তাকে ঋণদান বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।’ এর মাধ্যমে দেশে প্রতিবছর হাজার হাজার নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
 
নতুন ভ্যাট আইনে উদ্যোক্তাদের টার্ন-ওভার করমুক্ত আয়সীমা বাড়ানোর প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। নতুন এই আইন পাস হলে উদ্যোক্তাদের আর করের ভারে জর্জরিত হতে হবে না বলে উল্লেখ করেন গভর্নর।

Advertisement