Beta

ভারতে ভুয়া নারীবাদ : পায়েল

৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৫১

অনলাইন ডেস্ক
বলিউড অভিনেত্রী পায়েল রোহাতজি। ছবি : ইনস্টাগ্রাম

নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে সাবেক ভারত-সুন্দরী তনুশ্রী দত্তর ‘যৌন নিপীড়নের’ অভিযোগের পর নড়েচড়ে বসেছে বলিউড। কঙ্গনা রানাউত, ফারহান আখতার, সোনম কাপুর, অনুরাগ কাশ্যপসহ বেশ কয়েকজন জনপ্রিয় তারকা তনুশ্রীর পক্ষে মত দিয়েছেন। অবশ্য নির্মাতা বিবেক অগ্নিহোত্রীর বিরুদ্ধেও অভিযোগ এনেছেন তনুশ্রী। বলেছেন, বিবেক তাঁকে বলেছিলেন, ‘যাও, কাপড় তুলে নাচো।’

তনুশ্রীর অভিযোগ, ২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির শুটিং চলাকালে বর্ষীয়ান অভিনেতা নানা পাটেকার তাঁকে যৌন নিপীড়ন করেন। আর ২০০৫ সালে ‘চকলেট’ ছবির শুটিং চলাকালে ‘আপত্তিকর’ কথা বলেন নির্মাতা বিবেক অগ্নিহোত্রী।

অনেকের অভিযোগ, হলিউডে যৌন নিপীড়নবিরোধী আন্দোলন ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ ছড়িয়ে পড়লেও বলিউডে এ নিয়ে কেউ টুঁ শব্দটিও করে না। তবে তনুশ্রীর অভিযোগের পর এবার সরগরম বলিউড। যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছেন অনেক তারকা। বলছেন, বলিউডে নিরাপদ কাজের পরিবেশ জরুরি হয়ে পড়েছে।

২০১১ সালে অভিনেত্রী পায়েল রোহাতজি চিত্রনির্মাতা দিবাকর ব্যানার্জির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন। বলেছিলেন, দিবাকর তাঁর কাছ থেকে ‘বাড়তি সুবিধা’ নেওয়ার চেষ্টা করেছেন। দিবাকরের ‘সাংহাই’ ছবির জন্য পায়েলকে অডিশন দিতে হয়েছিল। ওই ঘটনা সে সময়কার।

তনুশ্রী দত্তর সঙ্গে ‘৩৬ চায়না টাউন’ (২০০৪) ও ‘ঢোল’ (২০০৭) ছবিতে কাজ করেছেন পায়েল রোহাতজি।

সংবাদমাধ্যম ডিএনএকে পায়েল বলেন, ‘নারী হিসেবে আমি তাঁকে (তনুশ্রী) বিশ্বাস করি ও তাঁর গল্প শুনতে চাই। দুজনের ঘটনা একই, পরিচালকের আচরণ নিয়ে আমি যেমনটা বলেছিলাম। যেহেতু তিনি ভালো নির্মাতা, তাই লোকের বিশ্বাস—মানুষ হিসেবেও তিনি ভালো। তাঁরা ভুলে গেছেন, পেশা ও কাজের নীতি আর ব্যক্তিমানুষ আলাদা বিষয়।

‘সে সময় পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ ও সুধীর মিশ্র আমাকে মানসিকভাবে অস্থির বলেছিলেন। আর এখন, অনুরাগ কাশ্যপ তনুশ্রীকে সাপোর্ট দিচ্ছেন। যাহোক, যখন বিবেক অগ্নিহোত্রীর নাম এলো, আমার মনে হলো এতে রাজনীতির রং আছে।’

‘রাজনীতি মেশানো মন্তব্য’ নিয়ে পায়েল বলেন, ‘ভারতে নারীবাদ ভুয়া। মানুষ দেবস্থানের ধর্ষণকাণ্ড নিয়ে প্ল্যাকার্ড হাতে প্রতিবাদ করে, অথচ সন্ন্যাসী যখন ধর্ষণ করে তখন নীরব থাকে।’

পায়েল বলেন, ‘হলিউডে যখন মি টু আন্দোলন শুরু হয়, অনেক অস্কারজয়ী অভিনেতা এগিয়ে এসেছিলেন। যেমন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি হার্ভে ওয়েস্টিনের বিপক্ষে মুখ খুলেছিলেন। আমরাও বলতে চাই, দীর্ঘদিন ধরে বলিউডে কী হচ্ছে। যেমন কয়েক বছর আগে মমতা কুলকার্নি নির্মাতা রাজকুমার সন্তোষির বিরুদ্ধে বলেছিলেন।’

যখন নির্মাতা দিবাকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন, তখন কেমন প্রতিক্রিয়া পেয়েছিলেন পায়েল? ‘আমার ওপর কোনো প্রভাব পড়েনি এবং আমি তা থেকে সরেও আসিনি। কয়েক বছর আমি সিনেমা করিনি, এর পরিবর্তে রিয়েলিটি শো করেছি। কখন মানুষ আপনাকে সমর্থন করবে আর কখন করবে না, এসবের নানা নির্ণায়ক আছে,’ বলেন এ অভিনেত্রী।

তনুশ্রীর অভিযোগ নিয়ে পায়েল বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা হয়ে থাকলে তা নিয়ে কথা বলা উচিত। কিন্তু সব ঘটনাই সমানভাবে দেখতে হবে, বেছে বেছে নয়।’

Advertisement