Beta

‘ক্ষমা চাইব না, পারলে নিষিদ্ধ করুন’, বিতর্কের আগুনে কঙ্গনার ঘি!

১১ জুলাই ২০১৯, ২২:৪১

অনলাইন ডেস্ক
ফের বিতর্কে জড়ালেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। ছবি : সংগৃহীত

বিতর্কের আগুনে প্রকাশ্যে ঘি ঢাললেন ‘ঠোঁটকাটা’ বলে সুপরিচিত, স্বজনপ্রীতি (নেপোটিজম) নিয়ে সোচ্চার বলিউড ‘কুইন’ কঙ্গনা রানাউত। বললেন, সাংবাদিকদের কাছে ক্ষমা চাইবেন না তিনি। উল্টো অনুরোধ করলেন, ‘আমাকে নিষিদ্ধ করে দিন।’

এন্টারটেইনমেন্ট জার্নালিস্টস গিল্ড অব ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কঙ্গনা রানাউত যেন প্রকাশ্যে ক্ষমা চান। নইলে তাঁর সিনেমার সব ধরনের প্রচারণা বয়কট করবেন সাংবাদিকেরা। মাইক্রো-ব্লগিং সাইট টুইটারে কঙ্গনার বোন রঙ্গলি চান্দেল একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছেন, সেখানে ভারতীয় গণমাধ্যম নিয়ে বক্তব্য দিলেন ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কিয়া’র নায়িকা।

সাদা জামা-সালোয়ার পরা কঙ্গনা রানাউত ওই ভিডিওতে বললেন, ‘আজ আমি ভারতীয় মিডিয়া নিয়ে কথা বলতে চাই। সব জায়গায় ভালো মানুষ যেমন আছে, তেমনি খারাপ মানুষও আছে। মিডিয়া আমায় অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে। খুব ভালো ভালো বন্ধু ও পরামর্শক পেয়েছি মিডিয়ায়। তাঁরা আমার সাফল্যের অংশীদার, তাঁদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।’

কিন্তু এর পরেই নিজের স্বর বদলে ফেলেন কঙ্গনা। অভিযোগ করেন, মিডিয়ায় একটি অংশ রয়েছে, যাঁরা তাঁর দেশের ‘সম্মান, একতা ও একাগ্রতাকে’ আক্রমণ করছেন। গুজব ছড়াচ্ছেন। ওই অংশকে ‘তথাকথিত উদারপন্থী’ বলে তিরস্কার করে কঙ্গনা আরো বলেন, মানুষগুলো দেশের জন্য ‘হুমকি’।

ভিডিও-বার্তায় কঙ্গনা :

আরেকটি ভিডিও প্রকাশ করেন রঙ্গলি চান্দেল। সেখানে কঙ্গনাকে বলতে শোনা যায়, ‘দেশদ্রোহীদের বিরুদ্ধে আমি জিরো টলারেন্স পোষণ করি।’ তাঁর অভিযোগ, এন্টারটেইনমেন্ট জার্নালিস্টস গিল্ডের তিন-চারজন তাঁর বিরুদ্ধে লেগেছেন।

এর পরই বিস্ফোরক কঙ্গনা। বলেন, ‘এই লোকগুলো আমাকে নিষিদ্ধের হুমকি দিচ্ছে, ক্যারিয়ার ধ্বংসের হুমকি দিচ্ছে (হেসে)... তোমরা আমায় ধ্বংস করবে? তোমরা যদি মুভি মাফিয়া হও, তবে আমিও দেশের শীর্ষ অভিনেত্রী ও সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেত্রী। তোমাদের বলছি, দয়া করে আমায় নিষিদ্ধ করো। আমি চাই না, আমার জন্য তোমাদের ঘরে খাবার না থাকুক।’

গত রোববার ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কিয়া’র ‘ওয়াকরা সোয়াগ’ গানের টিজার লঞ্চ অনুষ্ঠানে বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের সাংবাদিক জাস্টিন রাওয়ের সঙ্গে তর্কে জড়ান ছবির নায়িকা কঙ্গনা রানাউত। এর পরই এন্টারটেইনমেন্ট জার্নালিস্টস গিল্ড অব ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে বলা হয় কঙ্গনাকে। যদিও কঙ্গনার বোন উল্টো সাংবাদিকদের ‘দেশদ্রোহী’ আখ্যা দিয়ে বলেন, তাঁর বোন ক্ষমা চাইবেন না। গতকাল প্রযোজক একতা কাপুর সাংবাদিকদের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চান।

রোববার (৭ জুলাই) আর সব অনুষ্ঠানের মতোই সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপের মাধ্যমেই শুরু হয় অনুষ্ঠানটি। তবে এরই মাঝে সাংবাদিক জাস্টিন রাওয়ের প্রশ্নের উত্তর দিতে অস্বীকার করেন কঙ্গনা।

কঙ্গনার অভিযোগ, ‘মণিকর্নিকা : দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ ছবিটি মুক্তির আগে টানা তিন ঘণ্টা ধরে কঙ্গনার সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন জাস্টিন রাও। পরে তাঁর বিরুদ্ধে, তাঁর ছবির বিরুদ্ধে ‘বাজে’ প্রচার করেন তিনি। কঙ্গনার আরো অভিযোগ, তাঁর সিনেমাকে ও তাঁকে ‘উগ্র জাতীয়তাবাদী’ তকমা দিয়েছিলেন ওই সাংবাদিক।

কঙ্গনার অভিযোগের পরই তাঁর সঙ্গে ওই সাংবাদিকের তর্ক বাঁধে। পুরো ঘটনায় অপ্রস্তুত হয়ে পড়েন ঘটনাস্থলে উপস্থিত একতা কাপুর, রাজকুমার রাওসহ অন্যরা। বিষয়টি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত সিনেমার জনসংযোগের দায়িত্বে থাকা এক নারী। তবে তাতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হয়। পরে একতা কাপুর ও রাজকুমার রাও বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে সামাল দিতে চেষ্টা করেন।

পরে বিনোদন সাংবাদিকেরা কঙ্গনাকে ক্ষমা চাইতে বলার পরেও না চাইলে সংগঠনের পক্ষ থেকে তাঁকে বয়কটের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

Advertisement