Beta

ইন্ডিয়া-ভুটানের প্রথম যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রে সাইফ খান

২২ জুলাই ২০১৯, ১৩:৪০

বিনোদন প্রতিবেদক

ইন্ডিয়া ও ভুটানের প্রথম যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র ‘রলং’। ছবিটি পরিচালনা করছেন মুম্বাইয়ের পরিচালক ফয়সাল সাইফ। ছবিটি হিন্দি ও ভুটানিজ ভাষায় নির্মাণ হচ্ছে। এ ছবিতে মুম্বাই ও ভুটানের শিল্পীরা অভিনয় করছেন। তবে ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন বাংলাদেশের নায়ক সাইফ খান।

এ বিষয়ে সাইফ খান বলেন, ‘আমি বাংলাদেশের শিল্পী হিসেবে গর্বিত। কারণ, ইন্ডিয়া ও ভুটানের প্রথম যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রে কাজ করছি। চলতি মাসের শুরুতে ভুটানে ছবির কাজ শুরু হয়েছে। এখানে বিদেশি শিল্পী ও টেকনিশিয়ানদের সঙ্গে কাজ করতে অনেক ভালো লাগছে। নতুন অভিজ্ঞতা সঞ্চয় হচ্ছে। বাংলাদেশি শিল্পী শুনে আমাকে অনেক আপ্যায়ন করেছেন ভুটানের বাংলাদেশ হাইকমিশনার। আমাকে দাওয়াত করেছেন তাঁরা। আমি খুব গর্বিত আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের একজন আর্টিস্ট হিসেবে নিজের দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে।’

ছবি নিয়ে সাইফ আরো বলেন, ‘হিন্দি ভাষায় আমার কোনো কষ্ট হয় না কাজ করতে। কারণ, বাংলা আর হিন্দি দুই ভাষায় সমান দক্ষতা নিয়ে কথা বলতে পারি। এ বছরের শেষের দিকে একদিনে ইন্ডিয়া ও ভুটানে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে। ভুটানের চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি অনেকটাই নতুন। শুটিং আর পারমিশন নেওয়াটা খুব সহজ। ভুটানের প্রডিউসারের সঙ্গে আমার খুব ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। উনারা বাংলাদেশ-ভুটান যৌথ চলচ্চিত্র তৈরিতে খুব আগ্রহী।’

সবার কাছে দোয়া চেয়ে সাইফ বলেন, ‘এই চলচ্চিত্রটি ভৌতিক গল্প নিয়ে নির্মাণ হচ্ছে। এটি আমার প্রথম বলিউড চলচ্চিত্র। সকলের কাছে আমি এ চলচ্চিত্রের সাফল্যের দোয়া চাই। সবাই দোয়া করবেন, আমি যেন আরো ভালো কাজ দিয়ে দর্শকদের সামনে আসতে পারি।’

২০০৯ সালে আবু সুফিয়ানের ‘বন্ধু মায়া লাগাইছে’ ছবির মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে আগমন সিলেটের ছেলে সাইফ খানের। প্রথম ছবিতে তাঁর নায়িকা ছিলেন নিপুণ। এরপর তাঁর অভিনীত ছবি মুক্তি পেয়েছে ‘এক জনমের কষ্টের প্রেম’ ও ‘পালাবার পথ নেই’। এ ছাড়া কলকাতার চলচ্চিত্র ‘আমিই টোটো’তে অভিনয় করেছেন তিনি।

ক্রিকেটার হওয়ার শখ ছিল সাইফের, কিন্তু মা-বাবার কথায় সে ইচ্ছে ত্যাগ করেন তিনি। কিন্তু অভিনয়ের আগ্রহে যুক্ত হন নাটকের দল নাট্যজনে। শহীদুজ্জামান সেলিম পরিচালিত ‘এই সব অন্ধকার’ শিরোনামের নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি ছোটপর্দায় যুক্ত হন। পরে সিনেমার সহকারী পরিচালক মিজানের হাত ধরে পরিচালক আবু সুফিয়ানের সঙ্গে পরিচয় এবং তাঁর পরিচালিত ছবি ‘বন্ধু মায়া লাগাইছে’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি মডেলিং করেন সাইফ। ক্যারিয়ারের শুরুতে ফ্যাশন হাউস রঙের মডেল হয়েছিলেন। পরে তিনি আরএফএল ওয়ার্ডরোব, রবি প্রভৃতি বিজ্ঞাপনে কাজ করেন।

বর্তমানে মোহাম্মদ আসলাম পরিচালিত ‘সমাধান’ চলচ্চিত্রে কাজ করছেন। এ ছাড়া ‘বাঘিনী কন্যা’ চলচ্চিত্র নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন সাইফ খান।

Advertisement