Beta

চুমুতে আপত্তি বলেই ‘ইনশাআল্লাহ’ ছাড়লেন সালমান?

১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৫৯

অনলাইন ডেস্ক
বলিউড তারকা সালমান-আলিয়া ও পরিচালক বানসালি। ছবি : সংগৃহীত

তারকা পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘ইনশাআল্লাহ’ সিনেমায় প্রথমবারের মতো সুপারস্টার সালমান খানের সঙ্গে রোমান্স করতে দেখা যাবে আলিয়া ভাটকে—এমন খবরে উল্লসিত হয়েছিল পুরো বি-টাউন। কিন্তু শুটিং শুরুর মাত্র তিন দিন আগে টুইটারে সালমান প্রকাশ্যে জানান, বানসালির ছবিটিতে কাজ করছেন না।

পত্রপত্রিকার খবর, ছবির চিত্রনাট্য নিয়ে বানসালির সঙ্গে মতপার্থক্য তৈরি হয় সালমানের। সাম্প্রতিক খবর বলছে, ‘ইনশাআল্লাহ’ ছাড়ার মূল কারণ হলো, এতে নাকি একাধিক চুম্বন দৃশ্য রয়েছে, যাতে বরাবরই সালমানের আপত্তি।

একটি পত্রিকার বরাত দিয়ে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ‘ইনশাআল্লাহ’ ছবির চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে আলিয়ার সঙ্গে সালমানের বেশ কয়েকটি চুমুর দৃশ্য জরুরি। কিন্তু এই মহাতারকা অন্তরঙ্গ দৃশ্যের শুটিংয়ে আপত্তি জানিয়েছেন। এমনকি চুমুর দৃশ্যগুলো বাদ দেওয়ার জন্যও বানসালিকে অনুরোধ করেছেন সালমান।

প্রতিবেদনটি আরো জানিয়েছে, সালমানের অনুরোধ সত্ত্বেও চিত্রনাট্য পরিবর্তনে আগ্রহী নন পরিচালক। আর সালমান কখনোই ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করেননি। বরাবরই না বলে দিয়েছেন। আর সে কারণেই বহুল প্রতীক্ষিত ছবিটি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন সালমান।

সালমান খান বেরিয়ে যাওয়ার পর গুঞ্জন উঠেছিল, ওই ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের জন্য আরেক সুপারস্টার শাহরুখ খানকে প্রস্তাব দিয়েছেন পরিচালক বানসালি। কিছু কিছু প্রতিবেদন অবশ্য বলেছে, শাহরুখ নয়, হৃতিক রোশনকে ওই ছবির জন্য বিবেচনা করা হচ্ছে।

সালমান ছাড়লেও পরিচালক চাইছেন ছবির কাজ এগিয়ে নিতে। কারণ এরই মধ্যে নাকি ওই প্রকল্পের প্রযোজনা-পূর্ব কাজের জন্য বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করা হয়েছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়াকে একটি সূত্র বলেছে, “‘ইনশাআল্লাহ’র প্রযোজনা-পূর্ব কাজের জন্য বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করা হয়েছে। সালমান খানকে ছাড়াই ছবির কাজ এগিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন বানসালি। নির্মাতা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, চিত্রনাট্যে সামান্য বদল আনবেন ও পরিকল্পনা অনুযায়ী ছবিটি তৈরি করবেন। ছবিতে আলিয়া থাকবেন, কিন্তু সালমানের জায়গায় আরেক অভিনেতাকে খোঁজা হচ্ছে।”

সালমানের সঙ্গে কাজ করবেন, এমন খবরে খুব উত্তেজিত হয়ে পড়েছিলেন আলিয়া ভাট। এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘মনে আছে, আমি সত্যিই লাফ দিয়ে উঠেছিলাম। নিজ শহরে ছিলাম না, দেশের বাইরে ছিলাম। কী যেন একটা করছিলাম। হঠাৎ কল এলো। শুনে এক দৌড়ে ঘরের কোণে চলে গেলাম, লাফিয়ে উঠেছিলাম। মনে আছে, উত্তেজনায় আমি পাঁচ মিনিট ধরে লাফিয়েছি।’

কিন্তু ‘ইনশাআল্লাহ’ ছবিতে সালমান কাজ করছেন না, এ ঘোষণার পর হতাশ হয়ে পড়েছেন আলিয়া ভাট। ডিএনএর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মুম্বাইয়ে সঞ্জয় লীলা বানসালির অফিসে বেশ কয়েকবার দেখা গেছে আলিয়াকে। তবে কি ‘ইনশাআল্লাহ’র কাজ ফের শুরু হচ্ছে? সালমানের পরিবর্তে নতুন কোনো নায়ক যোগ দিচ্ছেন এ ছবিতে? নানা জল্পনা চলছে বি-টাউনে।

১৯৯৬ সালে ‘খামোশি : দ্য মিউজিক্যাল’ দিয়ে পরিচালক হিসেবে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন বানসালি। এই পরিচালক-প্রযোজকের ‘হাম দিল দে চুকে সনম’ মুক্তি পায় ১৯৯৯ সালে, যেখানে অভিনয় করেন সালমান খান, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও অজয় দেবগন। বানসালির ‘সাওয়ারিয়া’ ছবিতে বিশেষ দৃশ্যে দেখা গিয়েছিল সালমান খানকে, এ ছবি দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় রণবীর কাপুর ও সোনম কাপুরের।

Advertisement