Beta

শুচিবায়ুগ্রস্ততা কী?

২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:৫৮

ফিচার ডেস্ক

অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার, ওসিডি বা শুচিবায়ুগ্রস্ততা একটি মানসিক সমস্যা। এর বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩২৯৬তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. মো. তাজুল ইসলাম।  

ডা. মো. তাজুল ইসলাম বর্তমানে জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের মানসিক বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার বলতে কী বোঝায়?

উত্তর : ওসিডি বা অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার নামটির মধ্যে কিছু জিনিস বোঝায়। দুটো বিষয় রয়েছে এখানে। এক,  অবসেশন ও দুই, কমপালশন। অবসেশন হলো, আমাদের মনে ভেতর এমন কিছু চিন্তা আসতে পারে অথবা এমন কিছু তাড়না আসতে পারে, যাকে আমরা বলি থট, ইমেজ, ইমপালস। যেগুলো খুবই অপ্রীতিকর। যেগুলোকে আমরা ভুল মনে করি। অবাস্তব মনে করি। এবং এটি আমরা চাচ্ছি না। সে রকম কিছু দৃশ্য, চিন্তা বা তাড়না বারবার আমাদের মনের ভেতর ঢুকতে থাকে। এটি আমাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে ঢুকে থাকে। আমরা জানি, এগুলো ঠিক নয়, এর পরও চলে আসছে। এগুলোকে আমরা এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি। এরপরও জোর করে মনের ভেতর এই চিন্তাগুলো ঢুকে পড়ে। ঘরের ভেতর যেমন ডাকাত ঢুকে পড়ে, তেমনি চিন্তাগুলো ঢুকে পড়ে। চেষ্টা করেও আমরা এটি থেকে বের হতে পারি না। আর যদি চেষ্টা করে এটা না করা হয়, তাহলে খুব উদ্বেগে থাকি, চাপযুক্ত, কষ্টকর পরিস্থিতিতে থাকি।

দ্বিতীয় হলো, কমপালশন। এই যে বারবার একটি চিন্তা এলো, যে তাড়না এলো, এটির কারণে, তাকে কিছু কাজ করতে হয়, আচরণ করতে হয়। যেমন আমি উদাহরণ দিচ্ছি। আমার যদি এমন মনে হয় যে সবকিছু নোংরা হয়ে গেছে, ময়লা হয়ে গেছে, তাহলে সে বারবার হাত ধুতে থাকবে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা গোসল করে। বাথরুমে কয়েক ঘণ্টা কাটিয়ে দেয়। সে ভাবছে তার কোনো ময়লা পরিষ্কার হচ্ছে না।

সে হয়তো বুঝতে পারছে, আমি পরিষ্কার করেছি, এখন ময়লা নেই, কিন্তু তাকে বাধ্যতামূলকভাবে ওই পরিষ্কার করতে হবে। এই পরিষ্কার যদি সে না করে, চেষ্টা করে এটা করব না, তাহলে তার ভেতর তীব্র উদ্বেগ তৈরি হয়, কষ্ট তৈরি হয়। কষ্ট লাঘবের জন্য তাকে বারবার এই আচরণ করতে হয়। তাহলে এই রোগের দুটো বৈশিষ্ট্য। একই চিন্তা বারবার আসবে অনাকাঙ্ক্ষিত কারণে। সেই চিন্তার কারণে কিছু আচরণ তাকে বারবার করতে হবে। এই দুটো কারণে এর নাম হলো অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার।

Advertisement