Beta

কীভাবে বোঝা যাবে ফ্যাটি লিভার হয়েছে?

১৫ জুন ২০১৯, ১৬:২৮

ফিচার ডেস্ক
ফ্যাটি লিভারের লক্ষণের বিষয়ে আলোচনা করেছেন ডা. ফাওয়াজ হোসেন শুভ ও ডা. সাখাওয়াৎ হোসেন। ছবি : সংগৃহীত

ফ্যাটি লিভার বর্তমানে একটি প্রচলিত সমস্যার নাম। ফ্যাটি লিভার থেকে সিরোসিস, এমনকি অনেক সময় লিভার ক্যানসারও হতে পারে। কীভাবে বোঝা যাবে ফ্যাটি লিভার হয়েছে?  

এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৪৬২তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. ফাওয়াজ হোসেন শুভ। বর্তমানে তিনি স্কয়ার হাসপাতালে লিভার ও পরিপাকতন্ত্র বিভাগে পরামর্শক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : ফ্যাটি লিভারের লক্ষণ কী? অথবা কীভাবে বোঝা যাবে ফ্যাটি লিভার হয়েছে?

উত্তর  : দেখুন, প্রথমত লিভারে পাঁচ ভাগ পর্যন্ত ফ্যাট বা চর্বি জমা হতো পারে। লিভারে যদি পাঁচ ভাগের বেশি ফ্যাট জমা হয়ে থাকে, তখন একে আমরা ফ্যাটি লিভার বলি। একজন রোগীর সাধারণত আল্ট্রাসোনোগ্রামের মাধ্যমে ফ্যাটি লিভার নির্ণয় হতে পারে। সাধারণত কোনো একটি কারণে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হয়তো আল্ট্রাসোনোগ্রাম করতে চাইলেন, তখন দেখা গেল ফ্যাটি লিভার। কখনো গ্রেড ওয়ান আসে, কখনো গ্রেড টু আসে। তখন চিকিৎসক রোগীকে পরামর্শ দেন আপনার লিভারে ফ্যাট এসেছে, আপনি দ্রুত একজন লিভার বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেন।

আবার কিছু কিছু রোগী আমাদের কাছে আসে অভিযোগ নিয়ে। সেগুলো কেমন হতে পারে? এমন হতে পারে যে সে খেতে পারছে না, বদহজম হচ্ছে। আপনার পেটের ডান দিকে মাঝে মাঝে একটু ব্যথা অনুভব করছেন। এমন কিছু অভিযোগ নিয়ে উনি আমাদের কাছে আসতে পারেন। তখন আল্ট্রাসোনোগ্রাম করলে আমরা হয়তো ফ্যাটি লিভার পেয়ে যাই। ফ্যাটি লিভার পেলে এর চিকিৎসার জন্য চেষ্টা করে থাকি।

এ ছাড়া যেসব রোগী ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, যাদের স্থূলতার সমস্যা রয়েছে, যাদের লিপিড প্রোফাইল কোলেস্টেরলের পরিমাণটা অত্যন্ত বেশি, যাদের হরমোনের কিছু সমস্যা রয়েছে, কিংবা কেউ যদি হেপাটাইটিস সি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে থাকে, তাদের কিন্তু আমরা রুটিন চেকআপের মধ্যে ফ্যাটি লিভারটা এসেছে কি না দেখে থাকি। বিশেষ করে স্থূলকায় যারা রয়েছেন তাদের এবং ডায়াবেটিস যাদের রয়েছে, তাদের অবশ্যই ফ্যাটি লিভারের চিকিৎসা করতে হবে।

এ ছাড়া কখনো যদি তার প্যানক্রিয়াসে সমস্যা থাকে, যদি তার অ্যালকোহলে সমস্যা থাকে, তখন আমরা তার ফ্যাটি লিভারটা গুরুত্বের সঙ্গে চেক করে থাকি। পশ্চিমা বিশ্বে সাধারণত এটি অ্যালকোহলের সঙ্গে যুক্ত থাকে। আমাদের দেশে যেহেতু অ্যালকোহল নেওয়ার প্রবণতাটা কম, এ ক্ষেত্রে অ্যালকোহল জনিত ফ্যাটি লিভার কম পেয়ে থাকি। যারা অ্যালকোহলের ইতিহাস দিয়ে থাকেন, তাদের অবশ্যই আমরা ফ্যাটি লিভারটা স্ক্রিনিং করে থাকি।

আসলে মোদ্দা কথা প্রথমে ফ্যাটি লিভার রয়েছে কি না, এটি আমাদের নির্ণয় করতে হবে। কোন কোন অনুষঙ্গ এখানে জড়িত রয়েছে, সেগুলো জানতে হবে। কারণ, ফ্যাটি লিভার কিন্তু এখন অত্যন্ত খারাপের দিকে যাচ্ছে। তাই প্রত্যেকের সচেতন থাকতে হবে।

Advertisement