Beta

ডায়াবেটিস কী?

১৬ জুন ২০১৯, ১৬:৫৬

ফিচার ডেস্ক
ডায়াবেটিসের বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেছেন ডা. শাহজাদা সেলিম ও ডা. সানজিদা হোসেন। ছবি : এনটিভি

ডায়াবেটিস বর্তমানে একটি মহামারীর নাম। হয়তো এমন কোনো পরিবার খুঁজে পাওয়া যাবে না, যেখানে রোগীরা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত নন।

ডায়াবেটিস কী? কাদের ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগী বলা হয়, এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৪৬৩তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. শাহজাদা সেলিম। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : ডায়াবেটিস বলতে আমরা কী বুঝি? কাদের ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগী বলব?

উত্তর : ডায়াবেটিস সম্পর্কে অনেকেরই ধারণা রয়েছে। কারো কারো ক্ষেত্রে হয়তো একটু ভুল-ভ্রান্তি হতে পারে। যদি সোজাসাপ্টা উত্তর দেওয়া হয়, তাহলে ডায়াবেটিস মানে যেকোনো কারণে রক্তের গ্লুকোজ বেড়ে গেছে এবং বেড়ে গিয়ে থেকে গেছে। চিকিৎসা না করলে সেই গ্লুকোজের মাত্রা কাঙ্ক্ষিত মাত্রার চেয়ে বেশিই থাকবে। এটি একদম সহজ-সরলভাবে বলা যায়।

এর পেছনে কারণ হতে পারে ইনসুলিনের ঘাটতি, কারো কারো ক্ষেত্রে ইনসুলিনের ঘাটতি হয়তো অতটা নয়, কিন্তু ইনসুলিন রেজিসটেন্স রয়েছে। অর্থাৎ যেটুকু তৈরি হয়েছে, সেটুকু ঠিকঠাকমতো কাজ করতে পারছে না।

টাইপ ওয়ান ডায়াবেটিস এমন, যেখানে ইনসুলিন দ্রুত তৈরি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। তবে বাংলাদেশে বেশিরভাগ রোগী টাইপ টু-এ আক্রান্ত। সে ক্ষেত্রে উনার কিন্তু তৈরি হচ্ছে ইনসুলিনটা, তবে পরিমাণের তুলনায় কম। যেটুকু তৈরি হচ্ছে, সেটি ঠিকঠাকমতো কাজ করতে পারছে না। এর যোগফল হলো রক্তের গ্লুকোজ বেড়ে যাওয়া।

তবে আরেক ধরনের রোগী আমরা বাংলাদেশে খুব পাচ্ছি, সেটি হলো গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিস। এই নারীটির হয়তো আগে ডায়াবেটিস ছিল না অথবা থাকলেও শনাক্ত হয়নি। পেটে আসার পরে ধরা পড়ল। একে অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে ধরতে হবে। এতে মা ও শিশু দুজনেরই ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আরো অনেক কারণে ডায়াবেটিস হয়। সেগুলোর আবার বিভিন্ন ধরনের।

Advertisement