Beta

পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম হয় কেন?

৩০ আগস্ট ২০১৯, ১৯:২৮

ফিচার ডেস্ক
পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোমের বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেছেন ডা. রুখসানা পারভীন ও ডা. সাখাওয়াৎ হোসেন। ছবি : সংগৃহীত

মেয়েদের গর্ভাশয়ে অনেক ছোট ছোট সিস্ট তৈরি হয়। এই সিস্ট তৈরি হওয়ার কারণে কিছু উপসর্গ দেখা দেয়। এই উপসর্গের সমষ্টিকে আমরা একসঙ্গে বলি পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম।

পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম হয় কেন, এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৫৩০তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. রুখসানা পারভীন। বর্তমানে তিনি ২৫০ শয্যা টিবি হাসপাতালের গাইনি অ্যান্ড অবস বিভাগের পরামর্শক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম হয় কেন? কাদের বেশি হয়?

উত্তর : পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম মূলত একটি হরমোনের সমস্যা। মেয়েদের বৃদ্ধির জন্য কিছু হরমোন রয়েছে। এর মধ্যে প্রথম যেটি এফএসএইচ, এলএসএইচ, ইস্ট্রোজেন, প্রোজেস্টেরন ইত্যাদি। দেখা যায়, এই হরমোনের ভারসাম্যহীনতা হয়। আর অ্যান্ড্রোজেন হলো পুরুষ হরমোন। শুরুতে এফএসএইচটা বেড়ে যায়। এলএসএইচটা কম থাকে। এরপর দেখা যায়, আস্তে আস্তে এলএসএইচটা বাড়তে থাকে। প্রতি মাসে মেয়েদের যে ডিম্বাশয় রয়েছে, সেখান থেকে একটি ফলিকল বড় হয়ে যায়। একসময় এটা ব্লাস্ট হয়ে ফেটে ওভামটা বের হয়। সেখান থেকে কিছু হরমোন বের হয়। এই প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়েই কিন্তু ঋতুস্রাবটা হয়।

এই রোগীর ক্ষেত্রে দেখা যায়, একটি সিস্ট বড় না হয়ে ছোট ছোট অনেক সিস্ট, অর্থাৎ ফলিকলগুলো বড় হতে থাকে। তখন দেখা যায়, ওই ফলিকলগুলোর চারপাশ দিয়ে সিস্টের মতো শুরু হয়। এতে দেখা যায়, ওর মধ্যে অ্যান্ড্রোজেন হরমোনগুলো বেড়ে যায়। চারপাশে যে সিস্ট তৈরি হয়, সেখানে কিন্তু অ্যান্ড্রোজেন হরমোন তৈরি হয়। স্বাভাবিক যে প্রকৃতি, সেখানে একটি ফলিকল থাকছে বা বড় হচ্ছে। আর এখানে অনেকগুলো ফলিকল, অনেকগুলো সিস্ট। অ্যান্ড্রোজেন হরমোন বেশি। একটি মেয়ের পুরুষালি হরমোনের পরিমাণ তখন বেড়ে গেল। বেড়ে যাওয়ার জন্য কিছু লক্ষণ তার দেখা দেয়।

Advertisement