Beta

আপনার জিজ্ঞাসা

নবীর (সা.) শাফায়াত ছাড়া কি জান্নাতে যাওয়া যাবে না?

০৪ নভেম্বর ২০১৮, ১০:৩৮ | আপডেট: ০৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:২৩

অনলাইন ডেস্ক

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় এনটিভির জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দ‍র্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।

জুমাবারের বিশেষ আপনার জিজ্ঞাসার ৫৬৪তম পর্বে রোজ হাশরের মাঠে নবীর (সা.) শাফায়াত ছাড়া জান্নাতে যাওয়া যাবে কি না, সে সম্পর্কে টেলিফোনে জানতে চেয়েছেন একজন দর্শক। অনুলিখন করেছেন জহুরা সুলতানা।

প্রশ্ন : অনেকে বলে, রোজ হাশরের মাঠে নবীর (সা.) শাফায়াত ছাড়া নাকি জান্নাতে যাওয়া যাবে না। এটি কতটুকু সত্য?

উত্তর : জি, নবী (সা.) সুনির্দিষ্ট একটি গ্রুপের জন্য শাফায়াত করবেন। এটি হাদিস দ্বারা প্রমাণিত হয়েছে। তারা নবীর (সা.) শাফায়াতের মাধ্যমেই জান্নাত লাভ করতে পারবে। এটিও হাদিসের মধ্যে প্রমাণিত হয়েছে।

তবে নবীর (সা.) শাফায়াত ছাড়া জান্নাতে যাওয়া যাবে না—এ বক্তব্যটি এই দৃষ্টিভঙ্গি থেকে শুদ্ধ নয়। আল্লাহ সুবহানাহুতায়ালা কেয়ামতের দিন বিচার ফয়সালার পরে যাদের জন্য জান্নাতের ফয়সালা করবেন, তারা জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে।

কিন্তু যাদের শাফায়াতের প্রয়োজন হবে, তারা নবীর (সা.) শাফায়াতের জন্য অপেক্ষা করবে। যারা কবিরা গুনাহ করেছে, তাদের জন্য নবী (সা.) শাফায়াত করবেন।

এটি দীর্ঘ একটি আলোচনার বিষয়, শাফায়াতের অনেক ধাপ রয়েছে। তার মধ্যে শাফায়াতে কোবরা সবার জন্য। আর এটি নবী (সা.) করবেন শুধু বিচার ফয়সালার জন্য।

তাই শাফায়াতের বিষয়টি বিস্তারিত জানতে হলে আপনি কোনো বই থেকে জেনে নেবেন। কিন্তু যেভাবে বলেছেন, সেভাবে এই বক্তব্য শুদ্ধ নয়।

তবে হাশরের ময়দানে সবাইকে নবীর (সা.) এই শাফায়াতের মুখোমুখি হতে হবে, এর থেকে বাঁচার কোনো উপায় নেই। যেহেতু আল্লাহতায়ালার কাছে নবী (সা.) সুপারিশ করবেন, যাতে আল্লাহ সুবহানাহুতায়ালা মেহেরবানি করে আল্লাহর বান্দাদের মধ্যে বিচার ফয়সালা করে দেন। তখন আল্লাহ রাব্বুল আলামিন সেটি অনুমোদন দেবেন। আল্লাহতায়ালা বলবেন, ‘হে  মুহাম্মদ (সা.)! আপনি চান, এখন আপনাকে দেওয়া হবে। আপনি সুপারিশ করুন, আপনার সুপারিশ গ্রহণযোগ্য হবে।’   

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement