Beta

ভাবা যায়, বাংলাদেশ দলের সঙ্গে ছিল না কোনো নিরাপত্তাকর্মী!

১৫ মার্চ ২০১৯, ১৩:০৬ | আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১৮:৩৩

স্পোর্টস ডেস্ক

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে আজ এক ভয়াবহ হামলার ঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। হ্যাগলি ওভালের মাঠে অনুশীলন শেষে স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টার দিকে পাশের আল নুর মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়েছিলেন ক্রিকেটাররা। মসজিদের ভেতরে তখন এক বন্দুকধারী এলোপাতাড়ি গুলি চালাচ্ছে। মসজিদে প্রবেশের মুহূর্তে এক পথচারী নারী সতর্ক করায় বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা দৌড়ে টিম বাসে ঢুকে পড়েন। এরপর প্রাণ নিয়ে ফিরে এসে স্টেডিয়ামের ভেতরে নিরাপদ আশ্রয় নেন। এ সময় ঘটনাস্থলে বাংলাদেশ দলের সঙ্গে একজন নিরাপত্তাকর্মীও উপস্থিত ছিল না!     

হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া ক্রিকেটাররা এখন হোটেলে অবস্থান করছেন। ভয়াবহ এ হামলার ঘটনায় দুজন বাংলাদেশিসহ এখন পর্যন্ত ৪৯ জনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে বাংলাদেশ দলের সঙ্গে কোনো নিরাপত্তাকর্মী না থাকার ব্যাপারটি বিস্ময়ের সৃষ্টি করেছে। টিম বাসে করে ক্রিকেটারদের মসজিদে যাওয়ার সময় নিরাপত্তাকর্মী দূরে থাক, এমনকি স্থানীয় কোনো লিয়াজোঁ অফিসারও ছিলেন না।

সাধারণত অতিথি কোনো দল সফরে এলে স্বাগতিক দেশের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়ার প্রচলন রয়েছে। বাংলাদেশেও সফরে আসা বিদেশি দলগুলোর খেলোয়াড়দের জন্য ‘ভিআইপি’ পর্যায়ের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়। সেখানে নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়া বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে কোনো নিরাপত্তাকর্মী না থাকা রীতিমতো বিস্ময়কর। ক্রিকেটারদের হোটেল থেকে মাঠে যাওয়া, অনুশীলন ও অন্যান্য কাজে এদিক-সেদিক ঘোরাফেরা করার সময় নিরাপত্তাকর্মীর এমন অনুপস্থিতির ঘটনা বিরল। এমনকি কোনো লিয়াজোঁ অফিসার না থাকা স্বাগতিক দেশটির সফর আয়োজনের সক্ষমতাকেই প্রশ্নের মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছে।

Advertisement