Beta

‘কঠিন হলেও সেমিতে খেলা সম্ভব বাংলাদেশের’

২৫ জুন ২০১৯, ২০:৩৫

স্পোর্টস ডেস্ক

চলমান বিশ্বকাপে নিজেদের সপ্তম ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৬২ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। লাল-সবুজের দলের জয়ে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন সাকিব আল হাসান। ব্যাট হাতে ৬৯ বলে ৫১ রান এবং বল হাতে ২৯ রানে পাঁচ উইকেট পান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। এই জয়ের সুবাদে সেমিফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রেখেছে বাংলাদেশ।

শেষ চারে খেলতে হলে পরের দুই ম্যাচে জিততেই হবে বাংলাদেশকে। সেই সঙ্গে আছে কিছু সমীকরণের হিসাবও। কঠিন হলেও বাংলাদেশের সেমিফাইনালে খেলা সম্ভব বলে মনে করেন সাকিব আল হাসান।

বাংলাদেশের সেমিতে খেলার সম্ভাবনা নিয়ে সাকিব বলেন, ‘ইংল্যান্ডের আরো তিনটি ম্যাচ আছে। তাদের দরকার মাত্র একজয়। আমাদের দুটি ম্যাচ আছে। আমাদের দুটিই জিততে হবে। সমীকরণটা বেশে কঠিন। কিন্তু ক্রিকেটে যেকোনো কিছুই হতে পারে। তবে এই মুহূর্তে আমরা নিজেদের নিয়েই বেশি চিন্তা করতে চাই।’

লিগ পর্বে বাংলাদেশের শেষ দুটি ম্যাচ ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। দুটি ম্যাচেই কঠিন চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশের বলে মনে করেন সাকিব, ‘সামনে দুটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ আমাদের। ভারত আমাদের পরবর্তী প্রতিপক্ষ। দল হিসেবে অনেক শক্তিশালী ভারত। পাকিস্তানও ভালো দল। আশা করছি, আমরা সেরা ক্রিকেটটা খেলতে পারব।’

এদিকে নিজের সাফল্যে গর্বিত সাকিব বলেন, ‘সত্যি কথা বলকে কি, ভালোই লাগে যেকোনো অর্জনে। আর যখন কোনো টার্গেট থাকে, আর তা অর্জন করা যায়—ভালো লাগার মাত্রাটা আরো বাড়িয়ে দেয়। আশা করছি ভবিষ্যতেও এই সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারব।’

বাংলাদেশের প্রায় প্রত্যেক ম্যাচেই অবদান রেখে চলছেন সাকিব। তাহলে ওয়ান ম্যান শো হয়ে যাচ্ছে কি না, এমন এক প্রশ্নের জবাবে বিশ্বসেরা অলরাউন্ড বলেন, ‘আমি মোটেও মনে করি না, ওয়ান ম্যান শো হচ্ছে। সবাই নিজেদের জায়গা থেকে অবদান রাখছেন বলেই এই সাফল্য আসছে। হ্যাঁ, আমার পারফরম্যান্স হয়তো একটু বেশি ভালো যাচ্ছে, কিন্তু অন্যদের অবদানগুলোও খুব দরকার হয় ম্যাচ জেততে।’

এই দারুণ সাফল্যের পেছনে কারণ কী, এমন প্রশ্নের জবাবে সাকিব বলেন, ‘বিশ্বকাপের আগে অনেক পরিশ্রম করেছি বলেই এই সাফল্য পাচ্ছি। সে সময় আমি ফিটনেস নিয়ে অনেক কাজ করেছি।’

বিশ্বকাপে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে এক হাজার রান ও ৩২ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড গড়েন সাকিব। আর বিশ্বকাপে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এক ম্যাচে অর্ধশতক করেন এবং পাঁচ উইকেট নেন তিনি। এর ভারতীয় ক্রিকেটার যুবরাজ সিং এই কীর্তি গড়েছিলেন।

এটি সাকিবের ক্যারিয়ারের সেরা ওয়ানডে বোলিং। এর আগে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১০ ওভারে ৪৭ রান দিয়ে পাঁচ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে সাকিব ব্যাট হাতেও উজ্জ্বল ছিলেন। ৫১ রান করে  বিশ্বকাপে এখন তাঁর মোট সংগ্রহ ৪৭৬ রান। সাত ম্যাচে তিনটি হাফঞ্চেুরি ও দুটি সেঞ্চুরিতে এই রান করেন তিনি।

আর বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ২৭ ম্যাচ খেলে এক হাজার ১৬ রান করেন তিনি।

Advertisement