Beta

কর্ণাটকে মুখ্যমন্ত্রী পদে বিজেপি নেতা ইয়েদুরাপ্পার শপথ

১৭ মে ২০১৮, ১৪:৪৪ | আপডেট: ১৭ মে ২০১৮, ১৪:৪৮

কলকাতা সংবাদদাতা
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় কর্ণাটকের রাজভবনে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন বিজেপির বি এস ইয়েদুরাপ্পা (৭৫)। ছবি : সংগৃহীত

রাজ্যপালের ডাকে সাড়া দিয়ে ভারতের কর্ণাটক রাজ্যে সরকার গঠন করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। কংগ্রেস ও জেডিএস জোট বেঁধেও রুখতে পারেনি বিজেপির জয়যাত্রা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় কর্ণাটকের রাজভবনে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন বিজেপির নেতা বি এস ইয়েদুরাপ্পা (৭৫)। কর্ণাটকের রাজ্যপাল বাজুভাই বালা মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পাকে শপথবাক্য পাঠ করান।

অন্যদিকে, ইয়েদুরাপ্পা যখন শপথ নিচ্ছিলেন, তখন বেঙ্গালুরুতে বিধান সৌধে মহাত্মা গান্ধী মূর্তির নিচে বিক্ষোভ করেন কংগ্রেস ও জেডিএসের নেতারা। বিক্ষোভে শামিল হন কংগ্রেসের গুলাম নবি আজাদ, অশোক গেহলেট এবং সিদ্ধারামাইয়ার মতো নেতা। 

এর আগে গতকাল বুধবার রাতেই কংগ্রেস ও জেডিএস রাজ্যপালের আদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করে। গতকাল গভীর রাতেই মামলাটির শুনানি হলেও শেষ পর্যন্ত কোনো সুরাহা হয়নি।

একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হিসেবে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী পদে বিজেপির ইয়েদুরাপ্পাকে শপথ নেওয়ার পর সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করতে বলেন সুপ্রিম কোর্ট। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ইয়েদুরাপ্পাকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের নির্দেশ দেওয়া হয়। এ ঘটনার পর বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন তিনি।

এদিন কর্ণাটকে ইয়েদুরাপ্পা শপথ নেওয়ার পরেই কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘কর্ণাটকে বিজেপি সরকার গড়ছে। অথচ স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, বিজেপি কর্ণাটকে সরকার গড়ার মতো আসন পায়নি। কিন্তু তাও তারা সরকার গড়ছে। এতে ভারতের সংবিধানকে উপহাস করা হলো।’

উল্লেখ্য, কর্ণাটকে কংগ্রেস ও জেডিএস যথাক্রমে ৭৮ ও ৩৭টি আসন পেয়েছে। এ ছাড়া বাইরের আরো দুই বিধায়ক তাদের সঙ্গে রয়েছে বলে দাবি করেছে কংগ্রেস ও জেডিএস।

অন্যদিকে, কর্ণাটকে সরকার গঠনের জন্য মোট ১১২ আসনের মধ্যে বিজেপি একাই পেয়েছে ১০৪টি আসন। যে কারণে সবচেয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হিসেবে রাজ্যপাল বিজেপিকে সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানান।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement