Beta

ভারতে পাস হলো বিতর্কিত নাগরিকপঞ্জি বিল

০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০৮:৫৪ | আপডেট: ০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০৯:৪৮

কলকাতা সংবাদদাতা

ভারতের লোকসভায় পাস হয়ে গেল জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বিল। কংগ্রেস, বামসহ বিরোধী দলগুলোর বিরোধিতা সত্ত্বেও গতকাল মঙ্গলবার লোকসভায় পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল-২০১৬। এর ফলে পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা অমুসলিম অনুপ্রবেশকারীরা ভারতীয় নাগরিকত্ব পাবেন।

আজ বুধবার রাজ্যসভায় পেশ করা হবে বিলটি। মূলত এই বিল পাসের মাধ্যমে ভারতে অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে চাইছে কেন্দ্র। যদিও এই বিলের তীব্র বিরোধিতা করে বিরোধী দলগুলো দাবি করেছে, এই বিল ভারতীয় সংবিধানের মৌলিক অধিকারের বিরুদ্ধে। কংগ্রেস সাংসদরা এই বিলের বিরোধিতায় লোকসভা কক্ষ থেকে ওয়াকআউট করেন।

মঙ্গলবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বিলটি লোকসভায় পেশ করেন। এই নাগরিকপঞ্জি বিল অনুযায়ী, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে পর্যন্ত বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যেসব অমুসলিম ভারতে এসেছেন, তাঁদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। শুধু হিন্দু নয়, এই বিলের মাধ্যমে খ্রিস্টান, জৈন, বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষও এই সুবিধা পাবেন।

তবে এই বিলের বিরোধিতা করে ভারতের বিরোধী দলগুলো জানিয়েছে, এই বিল পাস হয়ে আইনে পরিণত হলে ১৯৭১ সালের মার্চ মাসের পর বাংলাদেশ থেকে বেআইনিভাবে যেসব হিন্দু ভারতে এসেছেন, তাঁরাও ভারতীয় নাগরিকত্ব পেয়ে যাবেন। যা ভারতের পক্ষে সুখের হবে না।

তবে এই বিল প্রসঙ্গে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান, গোটা দেশের কথা মাথায় রেখেই এই বিল আনা হয়েছে। এই বিলের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের স্বার্থের কথা মাথায় রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, এই বিলে খ্রিস্টানদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তার কারণ, দেশভাগের সময় তাঁরাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন।

অন্যদিকে, এই বিলে লোকসভার স্পিকারের হস্তক্ষেপ দাবি করে তৃণমূল সংসদ সদস্য সৌগত রায় বলেন, এই বিলে মুসলিমদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। দয়া করে এই বিলটিকে ধর্মনিরপেক্ষ করুন।

Advertisement