Beta

চোরেরা ব্যালট বাক্সের ‘গণরায়’ চুরি করেছে : এরদোয়ান

০৭ মে ২০১৯, ২১:৫০

অনলাইন ডেস্ক
ইস্তাম্বুলের পুনর্নির্বাচনের সিদ্ধান্ত দেশের জন্য মঙ্গলজনক বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান। ছবি : সংগৃহীত

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে ভোটে অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করে দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান বলেছেন, চোরেরা ব্যালট বাক্সের গণরায় চুরি করেছে, তাদেরকে জবাবদিহিতার আওতায় না আনা হলে জনগণ আমাদের কাছ থেকে এর ব্যাখ্যা চাইবে। পুনরায় ভোটের সিদ্ধান্ত আমাদের গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করবে। তিনি আরো বলেন, ‘সংঘবদ্ধ অপরাধচক্রের মাধ্যমে সাংঘাতিক দুর্নীতির ঘটনা ঘটেছে ইস্তাম্বুলে।’

ইস্তাম্বুলের মেয়র পদে পুননির্বাচনের তারিখ ঘোষণার প্রতিবাদে বিরোধীদলের বিক্ষোভের মুখে মঙ্গলবার দলের সংসদীয় সভায় এসব কথা বলেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান।

গত ৩১ মার্চের পৌরসভা নির্বাচনে ইস্তাম্বুলে মেয়র পদে বিজয়ী হন বিরোধীদলীয় প্রার্থী একরাম ইমামোগ্লু। এরপরই ভোটে কারচুপির অভিযোগ তোলে সরকারি দল এ কে পার্টি। নিয়ম মাফিক এপ্রিলে বিজয়ী প্রার্থীকে মেয়র হিসেবে ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

আগামী ২৩ জুন পুনর্নির্বাচনের ঘোষণা দিয়ে নবনির্বাচিত মেয়রকে অব্যাহতিও দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। ওই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সোমবার ইস্তাম্বুলসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্ষোভে নামে বিরোধীদল। বেশ আঁটঘাট বেধেই নেমেছেন তারা।

তুরস্কে ৩১ মার্চের পৌর নির্বাচনে ইস্তাম্বুলের মেয়র পদে নির্বাচিত একরাম ইমামোগ্লু। ছবি : সংগৃহীত

এসবের জবাবে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, পুনরায় ভোট নেওয়াটাই দেশের জন্য সবচেয়ে মঙ্গলজনক হবে। এ সময় পুনর্নির্বাচনের সিদ্ধান্তকে গণতন্ত্র এবং আইনি কাঠামোর মধ্যে থেকে সমস্যা সমাধানের সবথেকে মোক্ষম উপায় হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি।

ভোটে অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করে এরদোয়ান আরো বলেন, পুনরায় ভোটের সিদ্ধান্ত আমাদের গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করবে। চোরেরা ব্যালট বাক্সের গণরায় চুরি করেছে, তাদেরকে জবাবদিহিতার আওতায় না আনা হলে জনগণ আমাদের কাছ থেকে এর ব্যাখ্যা চাইবে।

অন্যদিকে ইউরোপীয় পার্লামেন্টও বলেছে, পুনর্নির্বাচনের সিদ্ধান্তের ফলে তুরস্কে গণতান্ত্রিক নির্বাচনের প্রতি আস্থার সংকট দেখা দিতে পারে।

গত ৩১ মার্চের পৌর নির্বাচনে ক্ষমতাসীন এ কে পার্টি নেতৃত্বাধীন জোট ৫১ শতাংশ ভোট পায়। তবে মূল মূল শহরগুলোর মধ্যে ইস্তাম্বুল, ইজমির এবং রাজধানী আঙ্কারায় বিরোধী দল সিএইচপি জয়লাভ করে। প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানও এক সময় আঙ্কারার মেয়র ছিলেন।

তুরস্কের গভর্নর আলি ইয়ারকালিকে নতুন ভোট না হওয়া পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত মেয়র ঘোষণা করা হয়েছে। সিএইচপির প্রার্থী একরাম ইমামোগ্লু সরকারদলীয় প্রার্থীর চেয়ে প্রায় ১৪ হাজার ভোট বেশি পেয়ে জয়লাভ করেন।

Advertisement