Beta

পরিবারের সদস্য ৯, কিন্তু পেলেন ৫ ভোট!

২৪ মে ২০১৯, ১৭:৩৫

অনলাইন ডেস্ক

নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবেই। কেউ জিতে বাঁধভাঙা উল্লাস করে, আবার কেউ হেরে কাঁদে পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে। এখানে যে ব্যক্তির কথা বলা হচ্ছে, তিনিও কেঁদেছেন। তবে কেবল পরাজিত হয়েছেন বলে নয়, তাঁর দুঃখের আরেকটি বড় কারণও আছে।

ভারতের পাঞ্জাব থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন এই ব্যক্তি। বহুল আলোচিত ভারতের এই নির্বাচন সাত ধাপে অনুষ্ঠিত হয় এবং গতকাল বৃহস্পতিবার এ নির্বাচনের ফল প্রকাশ শুরু হয়। ফলাফলে ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) কাছে পরাজিত হয় রাহুল গান্ধীর কংগ্রেস।

পাঞ্জাবের নিতু স্যাতার্ন ওয়ালা নামের এক প্রার্থীকে টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায়। পরে জানা যায়, ওই প্রার্থী মাত্র পাঁচটি ভোট পেয়েছেন। অথচ তাঁর পরিবারে সদস্য সংখ্যা নয়জন!

এক সাংবাদিক তাঁকে প্রশ্ন করেন, ‘আপনি কীভাবে জয়ের আশা করেন, যেখানে আপনার পরিবারের সদস্যরাই আপনাকে ভোট দেয়নি?’

তখনই কান্নায় ভেঙে পড়েন নিতু।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে নিতু বলেন, ‘আমি মাত্র পাঁচটি ভোট পেয়েছি, কিন্তু আমার পরিবারে সদস্য সংখ্যা নয়। নিশ্চয়ই আমার পরিবারের লোকজন আমার সঙ্গে বেইমানি করেছে।’

পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি তিনি ইভিএম পদ্ধতিকেও কম ভোট পাওয়ার জন্য দায়ী করেন।

সাক্ষাৎকারটি প্রচার হওয়ার পর তা সামাজিক মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে ভাইরাল হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হয়। ভোটের ফল পুরো ঘোষণার আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৬ মে সরকার গঠনের ইচ্ছা প্রকাশ করেন। ভোটের ফলে বিজেপির জয়জয়কার হতেই নয়াদিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে যান মোদি। সেখানে তিনি বিজেপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সন্ধ্যা ৬টার দিকে দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

Advertisement