Beta

উত্তাল মহাসাগরে ‘সাবমেরিনে’ পাচার হচ্ছিল নিষিদ্ধ বস্তু, তারপর যা হলো

১২ জুলাই ২০১৯, ১২:৪১

অনলাইন ডেস্ক

উত্তাল প্রশান্ত মহাসাগর। মার্কিন কোস্টগার্ডের একটি টহলরত হেলিকপ্টার থেকে দেখা গেল, সন্দেহভাজন একটি জাহাজ যুক্তরাষ্ট্রের দিকে এগিয়ে আসছে। দ্রুত বিষয়টি মহাসাগরে জাহাজে অবস্থানরত কোস্টগার্ডের নজরে আনা হয়। খবর পেয়ে জাহাজ থেকে মাঝসমুদ্রে ঝাঁপ দেয় কোস্টগার্ডের একটি টিম।

পরে প্রমাণিত হলো, কোস্টগার্ডের সন্দেহ অমূলক ছিল না। প্রশান্ত মহাসাগরের গভীর এলাকা দিয়ে পাচার হচ্ছিল ২০ কোটি ৩২ লাখ ডলার অর্থমূল্যের কোকেন।

ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাদক চোরাচালানে ব্যবহৃত এ ধরনের জাহাজকে বলা হয় ‘নার্কো সাবমেরিন’। প্রশান্ত মহাসাগরের গভীর এলাকা দিয়ে কোস্টগার্ডের নজর এড়িয়ে ১৭ হাজার পাউন্ড কোকেন পাচার করার পরিকল্পনা ছিল চোরাচালানিদের। কিন্তু মার্কিন কোস্টগার্ডের তৎপরতায় পাচারকারীদের সে পরিকল্পনা ভেস্তে যায়।

উত্তাল ঢেউয়ের মধ্যেই  জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মহাসাগরে লাফিয়ে পড়েন কোস্টগার্ডরা। এরপর সাঁতরে ওই সাবমেরিনের কাছে পৌঁছে যান।

কোস্টগার্ডরা ওই আটক সাবমেরিন থেকে ২৩২ মিলিয়ন ডলার মূল্যের অবৈধ মাদক কোকেন উদ্ধার করেন।

কোকেন আটক অভিযানের শ্বাসরূদ্ধকর ভিডিওটি দেখুন:

Advertisement