Beta

ভারতের মহারাষ্ট্রে বন্যায় পরিস্থিতি ভয়াবহ, নিহত ২৮

বন্যার প্রকোপ কর্ণাটক, গুজরাট, তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশসহ একাধিক রাজ্যে

১০ আগস্ট ২০১৯, ১৫:৩৯

কলকাতা সংবাদদাতা

ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে। মহারাষ্ট্রের গোটা কোলাপুর শহরটাই চলে গেছে ১০ ফুট পানির নিচে। মহারাষ্ট্রের বন্যাকবলিত পাঁচ জেলার মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা কোলাপুরের। কোলাপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা দুদিন ধরে টানা বৃষ্টিতে নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। এ শহরের বাড়িঘরের ছাদটুকু ছাড়া আর কিছুই দেখা যাচ্ছে না। পরিস্থিতি এতটাই উদ্বেগজনক যে সড়কপথে ত্রাণ নিয়ে যাওয়া যাচ্ছে না বন্যাকবলিত একাধিক এলাকায়। কোলাপুর শহরের ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে রাখতে হচ্ছে ত্রাণবহনকারী ট্রাকগুলোকে।

পাশাপাশি সাঙ্গলিও পানির তলায় চলে গেছে। বন্যার পানিতে এরই মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন মহারাষ্ট্রের দুই লাখ ৮৫ হাজারেরও বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে ৪৪ হাজারের বেশি মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এরই মধ্যে উদ্ধারকাজে নামানো হয়েছে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর সেনাদের। পাশাপাশি উদ্ধারকাজে হাত লাগিয়েছে ভারতের জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীও। জানা গেছে, গত কয়েক দিনে শুধু ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে বন্যার প্রভাবে ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। কৃষ্ণা, পঞ্চগঙ্গাসহ মহারাষ্ট্রের একাধিক নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বয়ে চলেছে।

তার ওপর একনাগাড়ে বৃষ্টির জেরে মুম্বাই ও বেঙ্গালুরুর মধ্যে যোগাযোগের ২৪ নম্বর জাতীয় সড়ক পানির তলায় চলে গেছে। এর ফলে বড় দুই মেট্রো শহরের যোগাযোগ পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। মহারাষ্ট্রে ভয়াবহ বন্যায় এরই মধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে এক হাজার ৪১০ কিলোমিটার রাস্তা। ভেঙে পড়েছে প্রায় চার হাজারের বেশি বাড়িঘর।

এরই মধ্যে আবার আগামী ৪৮ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে ভারি থেকে অতিভারি বর্ষণের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

এ ছাড়া মহারাষ্ট্রের পাশাপাশি কর্ণাটক, গুজরাট, তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ, গোয়াসহ একাধিক রাজ্যেও বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। প্রবল বর্ষণে সেইসব রাজ্যের একাধিক নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে। বন্যায় ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে মহারাষ্ট্রের শেলাপুর, সাংলি, কোলাপুর ও পুনে জেলা। প্রবল ঝুঁকি নিয়ে বন্যাপীড়িতদের উদ্ধারে নেমেছে উদ্ধারকারী দল।

Advertisement