ঈদের দিন স্ত্রীকে খুন করে স্বামীর আত্মহত্যা

১৩ আগস্ট ২০১৯, ১১:০৫

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশের মতো গতকাল সোমবার ভারতের বিভিন্ন স্থানে মুসলমানরা ঈদুল আজহা উদযাপন করেছেন। কিন্তু উৎসবের আনন্দ কয়েক মুহূর্তেই ম্লান গেছে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনার একটি বাড়িতে। ঈদের দিন উত্তর চব্বিশ পরগনার কামারহাটির ধোবিয়াবাগান এলাকায় ছুরির আঘাতে এক নারীকে হত্যা করে আত্মঘাতী হয়েছেন স্বামী। ভারতীয় গণমাধ্যম জিনিউজের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বাড়ির সবাই যখন ঈদের উৎসবে মেতে আছেন, তখন স্ত্রীর গলায় ছুরি চালান পেশায় বাসচালক সাজিদ হোসেন। শুধু তাই নয়, স্ত্রীকে হত্যার পর নিজের কব্জির শিরা কেটে আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টা করেন সাজিদ।

ছেলে অনেকক্ষণ ঘর থেকে বের হচ্ছে না দেখে দরজায় ধাক্কাধাক্কি করেন সাজিদের মা। কোনো সাড়া না পেয়ে প্রতিবেশীদের সহায়তায় দরজা ভেঙে দেখা গেল মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন সাজিদের স্ত্রী রেহানা পারভিন। আর সাজিদের হাত ভেসে যাচ্ছে রক্তে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় রেহানাকে সাগরদত্ত মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে সাগরদত্ত মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়ার জন্য রিকশায় তোলা হয় সাজিদকেও। কিন্তু হাসপাতালে এসে রিকশা থেকে নেমে একটি পুকুরে ঝাঁপ দেন সাজিদ। পরে বেলঘড়িয়া থানার পুলিশ এসে অনেক খোঁজাখুঁজির পর সাজিদের দেহ উদ্ধার করে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

সাজিদের সঙ্গে তিন বছর আগে রেহানার বিয়ে হয়েছিল। তাঁদের দুবছরের একটি সন্তান আছে।