Beta

আইএএসে প্রথম হওয়া ফয়সাল দিল্লিতে গ্রেপ্তার, শ্রীনগরে গৃহবন্দি

১৪ আগস্ট ২০১৯, ২০:২৪

অনলাইন ডেস্ক
আইএএস চাকরির পরীক্ষায় প্রথম হয়েও প্রতিবাদ স্বরুপ চাকরি থেকে ইস্তফা দেওয়া জম্মু ও কাশ্মীরি যুবক ডা. শাহ ফয়সাল। ছবি : সংগৃহীত

ভারতীয় প্রশাসন সার্ভিসে (আইএএস) চাকরির পরীক্ষায় প্রথম হয়েও প্রতিবাদ স্বরুপ চাকরি থেকে ইস্তফা দেওয়া জম্মু ও কাশ্মীরের যুবক ডা. শাহ ফয়সালকে দিল্লি বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর তাঁকে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের শ্রীনগরে নিয়ে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিদেশ যাওয়ার সময় ফয়সালকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ বুধবার ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে।

এর আগে ৩৭০ ধারা বাতিল করে জম্মু ও কাশ্মীরকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার সিদ্ধান্তের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কড়া সমালোচনা করেন ডা. শাহ ফয়সাল। গতকাল মঙ্গলবার তিনি টুইট করে রাজনৈতিক অধিকার ফিরে পেতে কাশ্মীরে অহিংস রাজনৈতিক গণ আন্দোলনের ডাক দেন। টুইট বার্তায় তিনি বলেন, রাজনৈতিক অধিকার ফিরে পেতে কাশ্মীরের প্রয়োজন একটি দীর্ঘ, টেকসই ও অহিংস রাজনৈতিক গণআন্দোলন।

৩৭০ ধারার বিলুপ্তি মূলধারার সুযোগ শেষ করে দিয়েছে জানিয়ে ডা. ফয়সাল বলেন, সাংবিধানিকরা চলে গেছেন। সুতরাং আপনি এখন কেবল তাবেদার নয়তো বিচ্ছিন্নতাবাদী হতে পারেন। কোনো ধূসরতার ছায়া নেই।

৩৫ বছরের ফয়সাল একজন এমবিবিএস চিকিৎসক। গত জানুয়ারিতে তিনি আইএএস ছাড়েন।

গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার। শুধু বিশেষ মর্যাদা বাতিল নয় কাশ্মীরকে জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখ নামে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করা হয়।

বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে সামরিকায়িত এলাকা হলো ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর। সেখানে লাখো সেনা মোতায়েন রয়েছে। এর মধ্যে কাশ্মীরকে দ্বিখণ্ডিত করার ঘোষণা দেওয়ার আগে সেখানে আরো ৩৫ হাজার অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়।

হাজার হাজার নিরাপত্তাকর্মী কাশ্মীর উপত্যকায় রয়েছেন। মোবাইল ফোন এবং ইন্টারনেট পরিষেবা এখনও বন্ধ রয়েছে। ভারতের অন্যান্য অঞ্চলে থাকা অনেক কাশ্মীরি তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না। তারা ঈদে বাড়িতেও ফিরতে পারেননি।

এছাড়াও ভারত নিয়ন্ত্রিত রাজ্য জম্মু ও কাশ্মীরের সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ওমর আব্দুল্লাহসহ কয়েকশ নেতাকর্মীকে আটক করে গৃহবন্দি করে রেখেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

Advertisement