Beta

যুক্তরাষ্ট্রে বিমানে মুসলিম যাত্রী, ‘নিরাপত্তাহীনতায়’ ফ্লাইট বাতিল

২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:১৬

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে দুজন মুসলিমের প্রতি বর্ণবাদী আচরণ ও ধর্মীয় বিদ্বেষ দেখিয়ে বিমানের একটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছেন অভিযোগকারী আবদুর রউফ ও ইসাম আবদুল্লাহ নামের দুজন ব্যক্তি।

গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রে ‘কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশন্স’ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তাঁরা। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

এ সময় আবদুর রউফ ও ইসাম আবদুল্লাহ অভিযোগ করেন, গত ১৪ সেপ্টেম্বর আলাবামা অঙ্গরাজ্যের বার্মিংহাম থেকে টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাসের উদ্দেশে আমেরিকান এয়ারলাইনসে পৃথকভাবে যাত্রা করছিলেন তাঁরা। এর মধ্যেই স্থানীয় মুসলিম সম্প্রদায় হওয়ার কারণে একে অপরকে চিনতে পারেন আবদুল্লাহ ও আবদুর রউফ। পরে তাঁরা কিছুক্ষণ একসঙ্গে কথা বলেন।

একপর্যায়ে ঘোষণা দেওয়া হয়, বিমানটি দেরিতে যাত্রা করবে। পরে বাথরুমে যান আবদুল্লাহ। ফিরে আসার সময় দেখেন, একজন বিমানবালা তাঁকে দেখে নাক সিঁটকাচ্ছেন।

এরপরই বিমানের যাত্রীদের বলা হয়, ফ্লাইটটি বাতিল করা হয়েছে। এ সময় আবদুর রউফ শুনতে পান, একজন বিমানবালা বলছেন যে নিরাপত্তার জন্য ফ্লাইটটি বাতিল করা হয়েছে।

এরপর দুজন পোশাকধারী কর্মকর্তা ও পরে এফবিআই এজেন্ট তাঁদের সঙ্গে দেখা করেন বলে দাবি করেন আবদুল্লাহ।

আবদুল্লাহ জানান, একজন এফবিআই এজেন্ট তাঁদের নাম-পরিচয় ও পেশা সম্পর্কে জিজ্ঞাস করেন। এবং তাঁদের ব্যাগ পুনরায় তল্লাশি করা হবে বলেও জানানো হয়। কেন এমন করা হচ্ছে জানতে চাইলে তাঁদের বলা হয়, কেবিন ক্রুরা পুলিশকে ডেকে জানিয়েছেন যে তাঁরা আবদুল্লাহর সঙ্গে যাত্রা করতে অস্বস্তিবোধ করছেন এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

আবদুল্লাহ বলেন, ‘সব জানার পর ওই এজেন্ট আমার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।’

আবদুল্লাহ বলেন, ‘এটা আমার জন্য খুবই বিব্রতকর একটি পরিস্থিতি। আমার ধর্মের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করা হয়েছে।’ এর সুষ্ঠু তদন্তও দাবি করেন তিনি।

Advertisement