Beta

আপনার জিজ্ঞাসা

গাড়ি-বাড়ি কেনার ঋণের ওপর জাকাত দিতে হবে?

০৮ আগস্ট ২০১৮, ১৯:২৭

অনলাইন ডেস্ক

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। শরীফ বায়জীদ মাহমুদের উপস্থাপনায় এনটিভির জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দর্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম শাইখ মোঃ রফিকুল ইসলাম আল-মাদানী।

আপনার জিজ্ঞাসার ২১৪৮তম পর্বে ঋণ নিলে সেই টাকার ওপর জাকাত আসবে কি না, সে সম্পর্কে মিরপুর থেকে ই-মেইলে জানতে চেয়েছেন ইফফাত শারমিন। অনুলিখনে ছিলেন জহুরা সুলতানা।

প্রশ্ন : গাড়ি বা বাড়ি কেনার জন্য লোন নিলে সেই লোনের ওপর কি জাকাত দিতে হবে? 

উত্তর : লোন বা ঋণ তো মানুষ নেহায়েত প্রয়োজনে করে থাকে। নবীজি (সা.) দরিদ্রতা এবং ঋণ থেকে আল্লাহ তায়ালার কাছে আশ্রয় চাইতেন। যে ঋণের ভার একজনের ওপর চেপে আছে, ওই ঋণ থেকে যদি আবার জাকাত আদায় করতে হয়, তাহলে তো তাঁর ওপর দ্বিগুণ চাপ হয়ে যাবে।

এই জন্য ইসলাম সবসময় ঋণটাকে আলাদা হিসাব করেছে। একজন মানুষের যা আয় রয়েছে, সেখান থেকে যোগ বিয়োগ করার পর, ঋণটাকে বাদ দেওয়ার পর যদি নেসাব পরিমাণ থাকে তাহলে সে জাকাত দেবে। এটি হলো মূল কথা।

এর মধ্যে আমি আরো একটু যোগ করতে চাই, সেটি হলো—যদি কেউ ব্যাংক বা অন্য যেকোনো জায়গা থেকে এমনভাবে লোন নেয় যে, লোন নেওয়ার পরে এই টাকা দিয়ে বাড়ি বা গাড়ি করবে, তাহলে তো বাড়ি, গাড়ির উপর জাকাত নেই, সঙ্গে তাঁর লোনটাও হিসেব করতে হবে। আর যদি এমন হয় যে, ওই টাকাটা হাতে রয়ে গেছে, খরচ হয়নি, তাহলে এটিও কিন্তু মূলধনের মধ্যে যোগ করতে হবে, যতক্ষণ সে কাজে না লাগাবে। অর্থাৎ এই টাকাটা তার মধ্যে আছে।

যেহেতু বাড়ি, গাড়ির ওপর জাকাত নেই, তাই এগুলোর ওপর জাকাত আসবে না। তারপর আপনি যে লোনটি নিয়েছেন সেটি যদি একই বছরে পরিশোধের বিষয় হয়ে থাকে, তাহলে আপনি পুরো লোনটা হিসেব করবেন।

যেমন— কেউ যদি ৫০ লাখ টাকা লোন নেয় এবং শর্ত হচ্ছে প্রতিবছর পাঁচ লাখ টাকা করে পরিশোধ করতে হবে তাহলে এক বছরে সে ঋণ করেছে পাঁচ লাখ টাকা। এই পাঁচ লাখ টাকাই হচ্ছে ওই ব্যক্তির ঋণ, ৫০ লাখ টাকা না।

অর্থাৎ যেই টাকাটা পরিশোধ করতে হবে সেটিই আপনার ঋণ। পরের বছর বাকি যে টাকা দেবেন সেটা পরের বছরের ঋণ। এটুকুকে ঋণ ধরে ঋণের টাকার ওপর জাকাত আসবে না।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement