Beta

রম্য

ফুটবলের এই সাক্ষাৎকার না পড়লে জীবন বৃথা

১৭ জুলাই ২০১৮, ১৫:৩৫

ফুটবল বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় তারকা ফুটবল হলেও সবাই এত দিন মেতে ছিল খেলোয়াড়, রেফারি, কোচ আর কাপ নিয়েই। ফুটবলেরও যে থাকতে পারে হাসি, কান্না ও অনেক মজার স্মৃতি, এটা নিয়ে কেউই ভাবতে চান না। আর তাই আমরা এখন এসেছি ফুটবলের সাক্ষাৎকার নিতে।

প্রশ্ন : কেমন আছেন?

ফুটবল : আর থাকা। ভালো নাইরে ভাই।

প্রশ্ন : কেন, কী হয়েছে?

ফুটবল : মাঠে ২২ জনে মিলে লাত্থি-উষ্টা মারলে কি ভালো থাকার কথা?

প্রশ্ন : আচ্ছা বুঝলাম। তা সবাই কি আপনাকে মারে? কেউ আদর-সোহাগ করে না?

ফুটবল : হুম করে। গোলকিপার মাঝেমধ্যে বুকে জড়ায় ধরে। তখন কি যে শান্তি লাগেরে ভাই... কলিজা পুরাই শীতল হয়ে যায়। মাঝেমধ্যে তো আবেগে কেঁদেও ফেলি...

প্রশ্ন : বাহ! আপনার আবার আবেগও আছে নাকি?

ফুটবল : ক্যান থাকব না?  ফুটবল বইল্যা আমরা কি আর মানুষ না?

প্রশ্ন : হা হা। এই জোকসটা ভালো ছিল। আচ্ছা বলেন তো মাঠের বাইরে আপনার কাকে বেশি ভালো লাগে?

ফুটবল : রবীন্দ্রনাথকে।

প্রশ্ন : কেন জানতে পারি?

ফুটবল : উনিই একমাত্র কবি, যিনি ফুটবল ভালোবাসতেন।

প্রশ্ন : এটা আপনি কীভাবে বুঝলেন?

ফুটবল : কীভাবে আবার, উনার কবিতা পড়ে। উনি কবিতায় লিখছেন, দাও দাও মোরে ‘বল’ দাও...

প্রশ্ন : আর কার কার কবিতা আপনি পড়েছেন?

ফুটবল : ইয়ে... তেমন কারোরই না। তবে সুফিয়া কামালের একটা কবিতা এক লাইন পড়ে আর কোনো কবিতাই পড়তে ইচ্ছে করেনি।

প্রশ্ন : কেন, উনি কী এমন লিখেছিলেন?

ফুটবল : লিখেছিলেন, গোল করো না... গোল করো না... আচ্ছা আপনিই বলেন গোলই যদি না করে তবে খেলা হবে কী করে?

প্রশ্ন : অল্পবিদ্যা যে ভয়ংকরী তা আপনাকে দেখলেই বোঝা যায়। আচ্ছা এবার বলেন, ২২ জন খেলোয়াড় মিলে যখন এক আপনার পেছনে দৌড়ায়, তখন কেমন ফিল করেন?

ফুটবল : মহল্লার সেই সুন্দরীর মতো, যার পেছনে ছেলেদের লাইন লেগেই থাকে।

প্রশ্ন : কর্তৃপক্ষের কাছে আপনার কোনো চাওয়া-পাওয়া আছে কি?

ফুটবল : অবশ্যই আছে। তারা যেন ২২ জনের জন্য ২২টা বল দিয়ে মাঠে খেলতে পাঠায়। তাহলে সবাই আর একটা বলের জন্য কাড়াকাড়ি করবে না!

প্রশ্ন : সাক্ষাৎকার প্রায় শেষের দিকে। পাঠকদের উদ্দেশে কিছু বলবেন?

ফুটবল : ফুটবল নিয়ে দলাদলি না করে আপনারা সবাই এক থাকবেন। কারণ জানেনই তো যে, একতাই ‘আমি’ অর্থাৎ ‘বল’ আর কী!

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement