Beta

আইফোনের ডিজাইনার জনি আইভ অ্যাপল ছেড়ে যাচ্ছেন

২৮ জুন ২০১৯, ১৬:০৬

অনলাইন ডেস্ক

ব্রিটিশ নাগরিক স্যার জনি আইভ দুদশকের বেশি সময় ধরে অ্যাপলকে বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান কোম্পানিতে পরিণত করতে কাজ করে গেছেন। সেই অ্যাপল ছেড়ে এবার নিজেই একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে সময় ব্যয় করবেন তিনি। আইম্যাক, আইপড ও আইফোনের ডিজাইনার স্যার জনাথন (জনি আইভ) এ বছরের শেষের দিকেই অ্যাপল ছাড়বেন।

সংবাদ সংস্থা বিবিসির খবরে বলা হয়, তিনি মূলত লাভফ্রম নামে একটি ক্রিয়েটিভ ফার্মের কাজ শুরু করবেন। মজার ব্যাপার হলো, এই ফার্মটির প্রথম গ্রাহক হতে যাচ্ছে অ্যাপল নিজেই।

অ্যাপল বস টিম কুক বলেছেন, ‘অ্যাপল পুনরুজ্জীবনে তার ভূমিকা অতুলনীয়।’ কিন্তু জনির যাওয়ার খবরটা এমন সময় এলো, যখন টেক জায়ান্ট অ্যাপলে কিছু বড় পরিবর্তন হতে যাচ্ছিল।

রিটেইল প্রধান অ্যাঞ্জেলা আহরেনডটস এপ্রিলেই কোম্পানি ছেড়েছেন, আবার বিনিয়োগকারীদের মধ্যেও আইফোন বিক্রি কমে যাওয়া নিয়ে এক ধরনের উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

স্যার জনি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘ত্রিশ বছর ও অসংখ্য প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করার পর একটি চমৎকার ডিজাইনের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি গর্বিত।’

এদিকে তাঁর নতুন ফার্ম লাভফ্রম সম্পর্কে এখনো তেমন কিছু বিস্তারিত জানানো হয়নি। তবে ক্যালিফোর্নিয়া ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি এক বিশেষ প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করবে বলে জানা যাচ্ছে।

একটি সংবাদপত্রে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অ্যাপল থেকে নিজের বিদায়ের খবর দিয়েছেন জনি। সেখানে তিনি বলেছেন, অ্যাপলে তাঁর সহকর্মী মার্ক নিউসনও তাঁর সঙ্গে যোগ দিতে যাচ্ছেন। নতুন প্রতিষ্ঠান তাঁর ডিজাইনের বাইরেও অনেক কিছু নিয়ে কাজ করবেন বলে বলেছেন তিনি।

জনি ১৯৯৬ সালে অ্যাপল ডিজাইন স্টুডিরও প্রধান হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। তখন কোম্পানির অবস্থা ছিল খারাপ এবং রীতিমত কর্মী ছাঁটাই চলছিল। তবে ১৯৯৮ সালে তাঁর ডিজাইন করা আইম্যাক দিয়েই সুদিনের পথে যাত্রা শুরু করে অ্যাপল। আর ২০০১ সালে আইপড নিয়ে আসেন তিনি এবং সেটিতেও রমরমা ব্যবসা হয়।

অ্যাপলে জনি আইভের অবদান

১. আইপড মিনি (২০০৪)

২. আইফোন (২০০৭)

৩. ম্যাকবুক এয়ার (২০০৮)

৪. আইপ্যাড (২০১০)

৫. অ্যাপল ওয়াচ (২০১৫)

৬. এয়ারপডস (২০১৬)

Advertisement