Beta

অ্যাপলের নতুন ১৫ ইঞ্চি ম্যাকবুক

২২ মে ২০১৫, ১৫:৩১ | আপডেট: ২২ মে ২০১৫, ১৬:১৫

ইশতি আহমেদ
১৫ ইঞ্চি ম্যাকবুকের এই আপডেটেড ভার্সনে রয়েছে রেটিনা ডিসপ্লে। ছবি : নোটবুক চেক

প্রযুক্তি বিশ্বে আলোচনার শীর্ষে থাকাটা অ্যাপলের যেকোনো পণ্যের জন্য খুব স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে গেছে। এ সপ্তাহে অ্যাপল তাদের নতুন ম্যাকবুক ছাড়ার ঘোষণা দিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছে। ১৫ ইঞ্চি এই ম্যাকবুকে যোগ হয়েছে নতুন প্রযুক্তি ফোর্স টাচ ট্র্যাকপ্যাড, যা কি না সর্বপ্রথম দেখা গিয়েছিল অ্যাপল ওয়াচে। এ ছাড়া বাজারে আরো এসেছে ফাইভ কে রেটিনা ডিসপ্লে নিয়ে অ্যাপলের নতুন ২৭ ইঞ্চি আইম্যাক ডেস্কটপ।

অ্যাপলের ওয়ার্ল্ডওয়াইড মার্কেটিংয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিলিপ শিলার বলেন, ‘রেটিনা ডিসপ্লে-সমৃদ্ধ ১৫ ইঞ্চি এই ম্যাকবুক প্রো-এর সঙ্গে ফোর্স টাচ ট্র্যাকপ্যাড, দ্রুতগতিসম্পন্ন ফ্ল্যাশ স্টোরেজ আর ব্যাটারির দীর্ঘায়ু সংযুক্ত করতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত।’

বিল্ট-ইন ফোর্স টাচ ট্র্যাকপ্যাডের কারণে ব্যবহারকারীরা প্যাডে হাত রেখে আরো বেশি জীবন্ত অনুভূতি পাবেন। তা ছাড়া ক্লিক করার জন্য আঙুলের চাপের পরিমাণ নিজেদের পছন্দমতো কমিয়ে-বাড়িয়ে নেওয়ার অপশনও রয়েছে। 

১৫ ইঞ্চি ম্যাকবুকের এই আপডেটেড ভার্সনে রয়েছে রেটিনা ডিসপ্লে। ৩ দশমিক ৪ গিগাহার্টজ টার্বো বুস্ট স্পিডের সঙ্গে এতে রয়েছে ২ দশমিক ২ গিগাহার্টজের কোয়াড-কোর ইন্টেল কোর আই সেভেন প্রসেসর। আরো আছে ১৬ গিগাবাইট র‍্যাম, ২৫৬ গিগাবাইট ফ্ল্যাশ স্টোরেজ এবং ইন্টেল আইরিস প্রো গ্রাফিকস।
 
তবে একটু বেশি টাকা খরচ করলে পাওয়া যাবে এই ম্যাকবুকের আরেকটি ভার্সন। তাতে রয়েছে ২ দশমিক ৫ গিগাহার্টজ কোয়াড-কোর ইন্টেল কোর আই সেভেন প্রসেসর, সঙ্গে টার্বো বুস্ট স্পিড ৩ দশমিক ৭ গিগাহার্টজ পর্যন্ত। আছে ১৬ গিগাবাইট র‍্যামের সঙ্গে ৫১২ গিগাবাইট ফ্ল্যাশ স্টোরেজ আর এএমডি র‍্যাডেওন আর নাইন এম৩৭০এক্স গ্রাফিকস। 

এ ছাড়া আরো টাকা খরচ করে পাওয়া যাবে দ্রুত গতিসম্পন্ন কোর-আই সেভেন কোয়াড কোর প্রসেসর আর ১ টেরাবাইটের ফ্ল্যাশ স্টোরেজ।
 
অ্যাপল আরো এনেছে ফাইভ কে ডিসপ্লে-সমৃদ্ধ একটি ২৭ ইঞ্চি আইম্যাক। এর স্ক্রিন রেজ্যুলেশন ৫১২০×২৮৮০ পিক্সেলের। অ্যাপল দাবি করছে, একটি স্ট্যান্ডার্ড ফোর কে ডিসপ্লে থেকে এটি প্রায় ৬৭ শতাংশ বেশি পিক্সেল প্রদর্শন করবে। 
এতে আরো রয়েছে ৩ দশমিক ৩ গিগাহার্টজের কোয়াড কোর ইন্টেল কোর প্রসেসর এবং সঙ্গে টার্বো বুস্ট গতি ৩ দশমিক ৭ পর্যন্ত। আরো আছে এএমডি র‍্যাডেওন আর নাইন এম২৯০ গ্রাফিকস। এর র‍্যাম ৮ গিগাবাইট এবং ১ স্টোরেজ টেরাবাইটের।
 
এই আইম্যাকের স্টোরেজের জন্য এসএসডি কার্ড ব্যবহার না করে সাধারণ হার্ডডিস্ক ব্যবহার করা হয়েছে। এতে আছে চারটি ৩ দশমিক শূন্য ইউএসবি পোর্ট। সঙ্গে আছে আরো দুটি থান্ডারবোল্ট পোর্ট।

Advertisement