Beta

উত্তাপ না কমলে হামলা চালাতে পারে ইরান : ইসরায়েলি মন্ত্রী

১২ মে ২০১৯, ২২:০০

রয়টার্স
ইসরায়েলি জ্বালানিমন্ত্রী ইউভাল স্টেনিটজ। ছবি : রয়টার্স

তেহরান ও ওয়াশিংটনের মধ্যকার উত্তেজনা চলমান থাকলে ইরান ইসরায়েলে হামলা চালাতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ইসরায়েলি জ্বালানিমন্ত্রী ইউভাল স্টেনিটজ।

ইরান বিষয়ে কঠোর মনোভাবী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থক ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সরকার সাম্প্রতিক উত্তেজনায় অনেকটাই নীরব। সেই নীরবতা ভেঙে ইরানের হামলার আশঙ্কা প্রকাশ করলেন নেতানিয়াহু সরকারের মন্ত্রী।

তবে এ নিয়ে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর কেউ কথা বলতে রাজি হননি।

অন্যদিকে ইরানি রেভল্যুশনারি গার্ড বাহিনীর প্রধান বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ শুরু করে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। রোববার ইরানি পার্লামেন্টে ব্ক্তৃতায় এ কথা বলেন দেশটির অভিজাত বাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি।

ইরানের ওপর অর্থনৈতিক ও সামরিক চাপ বাড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গত বৃহস্পতিবার ট্রাম্প পরমাণু কর্মসূচি ছাড়তে ইরানের নেতৃবৃন্দকে তাঁর সঙ্গে কথা বলার আহ্বান জানান। অন্যথায় সশস্ত্র হামলার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

ইসরায়েলি জালানিমন্ত্রী ইউভাল স্টেনিটজ বলেছেন, ‘ইরান এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে কোনো ধরনের সংঘর্ষ বাধলে ইরানের প্রতিবেশী হিসেবে ইসরায়েল সরাসরি বা প্রক্সি হামলার শিকার হতে পারে।  হিজবুল্লাহ এবং গাজার ইসলামিক জিহাদের মাধ্যমে অথবা সরাসরি ইরানের মাটি থেকে ইসরায়েলে হামলা চালানোর আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না।’

লেবাননের হিজবুল্লাহসহ সিরিয়া ও ফিলিস্তিনে ইরানি মদদপুষ্ট বিভিন্ন সশস্ত্র গোষ্ঠীর সঙ্গে সংঘাতে জড়ালেও ইসরায়েল সরাসরি ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ায়নি কখনো।

সম্প্রতি ইরানের সম্ভাব্য হামলার ঝুঁকি এড়ানোর কথা বলে মধ্যপ্রাচ্যে পরপর দুটি রণতরী এবং আকাশপথের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েনের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

Advertisement