Beta

বিশ্বের এই শহরগুলো এখন সবচেয়ে নিরাপদ

২৯ আগস্ট ২০১৯, ১১:৩৮

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বে বসবাসের উপযোগী সবচেয়ে নিরাপদ ৬০টি শহরের তালিকা প্রকাশ করেছে দি ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট। তালিকায় ঢাকা শহরের অবস্থান ৫৬তম। আজ বৃহস্পতিবার এই তালিকা প্রকাশ করা হয়। ২০১৭ সালে ঢাকার অবস্থান ছিল ৫৮তম। দুই বছর পরপর এই তালিকা প্রকাশ করা হয়।

নিরাপদ শহরের তালিকায় শীর্ষ দশে রয়েছে টোকিও, সিঙ্গাপুর, ওসাকা, আমস্টারডাম, সিডনি, টরন্টো, ওয়াশিংটন, কোপেনহেগেন, সিউল ও মেলবোর্ন।

তালিকার শেষের ১০টি শহর হচ্ছে (নিচ থেকে উপরে) লাগোস, ক্যারাকাস, ইয়াঙ্গুন, করাচি, ঢাকা, কায়রো, ক্যাসাব্লাঙ্কা, জাকার্তা, নয়াদিল্লি ও বোগোটা।

এ নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো তালিকার শীর্ষ তিন স্থান ধরে রাখল টোকিও, সিঙ্গাপুর ও ওসাকা। এবারের তালিকার শীর্ষ দশে উল্লেখযোগ্য দুটি পরিবর্তন হলো ওয়াশিংটনের অন্তর্ভুক্তি এবং ২০১৭ সালের তালিকায় নবম স্থানে থাকা হংকংয়ের এবারের তালিকায় ২০তম স্থানে অবনমন।

নিরাপদ শহরের তালিকায় এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের বেশ কয়েকটি শহর যেমন স্থান পেয়েছে, তেমনি তালিকার একেবারে তলানিতেও রয়েছে এ অঞ্চলের কয়েকটি দেশের শহর। মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনের অবস্থান তালিকার ৫৮তম স্থানে। পাকিস্তানের করাচির অবস্থান ৫৭তম এবং ঢাকার অবস্থান ৫৬তম। ভারতের নয়াদিল্লি রয়েছে তালিকার ৫৩তম অবস্থানে।

৫৭টি সূচকের ওপর জরিপ চালিয়ে এ তালিকা নির্ধারণ করেছে ইন্টেলিজেন্স ইউনিট।

তবে দি ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের শহরগুলো বিভিন্ন সূচকের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা সূচকে তুলনামূলক কম ভালো অবস্থানে রয়েছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের শহরগুলো স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, অবকাঠামোগত নিরাপত্তা ও ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সূচকগুলোতে ভালো অবস্থানে রয়েছে। তবে ডিজিটাল নিরাপত্তা সূচকে অনেক বেশি ভালো অবস্থানে রয়েছে উত্তর আমেরিকার শহরগুলো।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১০ বছরে ঢাকায় প্রতিবছর সাড়ে চার লাখ করে জনসংখ্যা বেড়েছে।

Advertisement