Beta

অন্তর্জালে সমালোচনার ঝড় তুলেছে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর ‘মেকআপ’

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:৪৬ | আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:৪৭

অনলাইন ডেস্ক

দুই দশক আগে তোলা একটি ছবি নিয়ে মহাবিপাকে পড়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। টাইম ম্যাগাজিনে প্রকাশিত একটি নিবন্ধের সঙ্গে ছাপা ছবিতে দেখা যায়, কানাডার একটি বেসরকারি বিদ্যালয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে ত্বক কালো করা মেকআপে ট্রুডো কয়েকজন নারীর সঙ্গে দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

ছবিটি নিয়ে অন্তর্জালে সমালোচনার ঝড় উঠলে ট্রুডো তাঁর কৃতকর্মের জন্য ‘গভীর দুঃখ প্রকাশ’ করে জানান, এ বিষয়ে ‘আরো ভালোভাবে জ্ঞানলাভ করা উচিত ছিল’। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

ভ্যানকুভারের ওয়েস্ট পয়েন্ট গ্রে একাডেমিতে ২০০১ সালে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে তোলা ছবিতে দেখা যায়, মুখে ও হাতে ত্বক কালো করার মেকআপ নিয়েছেন ট্রুডো। 

কানাডার সাবেক প্রধানমন্ত্রী পিয়েরে ট্রুডোর ছেলে জাস্টিন ট্রুডো ২০০১ সালে দেশটির অভিজাত ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করতেন।

আগামী ২১ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য কানাডার সাধারণ নির্বাচনে পুনর্নির্বাচিত হতে লড়বেন জাস্টিন ট্রুডো।

টাইম ম্যাগাজিনে নিবন্ধটি প্রকাশ হওয়ার পর এ নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ট্রুডো। এ সময় কানাডার প্রধানমন্ত্রী জানান, ওই অনুষ্ঠানে আরব্য রজনীর চরিত্রগুলোর ধাঁচে পোশাক পরে আসার বাধ্যবাধকতা ছিল। সে অনুযায়ী আলাদিন সেজে অনুষ্ঠানে আসেন জাস্টিন ট্রুডো।

সাংবাদিকদের কাছে ট্রুডো স্বীকার করেন যে, ছবিটি বর্ণবাদী এবং তাঁর ‘এমন কাজ করা উচিত হয়নি’।

এ ধরনের কর্মকাণ্ডের সঙ্গে আর কখনো জড়িত ছিলেন কি না, জানতে চাওয়া হলে ট্রুডো সাংবাদিকদের জানান, হাইস্কুলে পড়ার সময় এক ট্যালেন্ট শোতে এমন মেকআপ নিয়ে পারফর্ম করেছিলেন।

এদিকে ট্রুডোর সংবাদ সম্মেলনের পর হাইস্কুলে পড়াকালীন ওই অনুষ্ঠানের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে পোস্ট করেছেন এক ব্যক্তি।

টাইম ম্যাগাজিনে ট্রুডোর ছবিটি প্রকাশের পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে কানাডায় বসবাসরত মুসলমানদের কেন্দ্রীয় সংগঠন ন্যাশনাল কাউন্সিল অব কানাডিয়ান মুসলিমস।

সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক মুস্তফা ফারুক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে বাদামি চামড়ার মানুষ বা কৃষ্ণাঙ্গ সাজতে দেখাটা খুবই দুঃখজনক। এগুলো বর্ণবাদের ইতিহাস স্মরণ করিয়ে দেয়।’

কানাডার বিরোধী দল করজারভেটিভের (রক্ষণশীল) প্রধান অ্যান্ড্রু শির বলেন, ‘ছবিটি ২০০১ সালের প্রেক্ষাপটে বর্ণবাদী ছিল, এই সময়েও বর্ণবাদী।’ 

কোনো পশ্চিমা নেতার বর্ণবাদী ছবি নিয়ে বিপাকে পড়ার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের গভর্নর রালফ নরথ্যাম স্বীকার করেছিলেন, তিনি মাইকেল জ্যাকসন সাজতে গিয়ে মুখে কালো মেকআপ নিয়েছিলেন।

Advertisement