Beta

নাইজেরিয়ায় ‘বেবি ফ্যাক্টরি’ থেকে ১৯ নারী উদ্ধার

০১ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:৪৮ | আপডেট: ০১ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৪৬

অনলাইন ডেস্ক
নাইজেরিয়ায় ‘বেবি ফ্যাক্টরি’ থেকে উদ্ধার হওয়া গর্ভধারী এক নারী। ভিডিও ফুটেজ থেকে নেওয়া একটি স্থিরচিত্র। ছবি : রয়টার্স

 

নারী ও কিশোরীদের অপহরণের পর গর্ভধারণে বাধ্য করা হয়, পরে সন্তান ভূমিষ্ঠের পর ওই নবজাতকদের বেচে দেওয়া হয়। নাইজেরিয়ার সবচেয়ে বড় শহর লাগোসে এমন ১৯ নারী ও কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া চারটি শিশুকেও সেখানে পাওয়া যায়।

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ১৫ থেকে ২৮ বছর বয়সী ওই নারী ও কিশোরীদের নাইজেরিয়ার বিভিন্ন জায়গা থেকে লাগোসে আনা হয়। এরপর তাদের বদ্ধ কক্ষে বন্দি রেখে গর্ভধারণে বাধ্য করা হয়।  দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় এসব ‘বেবি ফ্যাক্টরির’ অস্তিত্ব ওপেন সিক্রেট। স্থানীয়দের অনেকেই বিষয়টি জানেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

নাইজেরিয়ার লাগোসে ‘বেবি ফ্যাক্টরি’ থেকে উদ্ধার করে নারী ও কিশোরীদের নিয়ে যাচ্ছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ছবি : রয়টার্স

লাগোস পুলিশের মুখপাত্র বালা এলকানা বলেন, ‘সন্দেহভাজন চক্রটি জোরপূর্বক গর্ভধারণের জন্য অধিকাংশ তরুণীকে অপহরণ করে থাকে। শিশু জন্মের পর চড়া দামে বিক্রি করে দেওয়া হয়। লাগোসে গৃহকর্মীর চাকরির কথা বলে কিশোরীদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়।’

পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ছেলেশিশুরা পাঁচ লাখ ও মেয়েশিশুরা তিন লাখ স্থানীয় মুদ্রায় বিক্রি হয়। বাংলাদেশি টাকায় ছেলেশিশুদের প্রায় দেড় লাখ ও মেয়েশিশুদের আশি হাজার টাকার মতো দাম ওঠে।

 

Advertisement