Beta

‘জয় শ্রী রাম’ না বলায় মুসলিম দম্পতিকে মারধর ও যৌন নির্যাতন

০৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৩৭

কলকাতা সংবাদদাতা

‘জয় শ্রী রাম’ না বলায় ভারতের রাজস্থানে এক মুসলিম দম্পতিকে বেধড়ক মারধর ও যৌন নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত শনিবার সন্ধ্যায় রাজস্থানের আলওয়ার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যায় আলওয়ার বাসস্ট্যান্ডের এক দোকানে বসে খাবার খাচ্ছিলেন ওই মুসলিম দম্পতি। সে সময় তাঁদের সামনে গিয়ে দাঁড়ান বাসু ভরদ্বাজ (২৩) ও সুরেন্দ্র ভাটিয়া (৩২) নামের দুই যুবক। এ সময় তাঁরা ওই দম্পতিকে ‘জয় শ্রী রাম’ বলতে বলেন। কিন্ত তাঁরা তা বলতে অস্বীকৃতি জানালে তাঁদের মারধর করেন দুই যুবক। এ ঘটনা দেখে ওই দম্পতির আশপাশে লোকজন জড়ো হতে থাকে। এরপর ওই দম্পতিকে পাশের থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ভরদ্বাজ ও সুরেন্দ্রর নামে অভিযোগ করেন তাঁরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই দম্পতির বাড়ি হারিয়ানার নুহ এলাকায়। রাজস্থানের আলওয়ার এলাকায় আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন তাঁরা। এ সময় তাঁদের সন্তানও সঙ্গে ছিল। বাড়িতে ফেরার জন্য শনিবার রাত ১১.৩০টায় আলওয়ার বাসস্ট্যান্ডে যান তাঁরা। এ সময় বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে খাবার খাচ্ছিলেন ওই দম্পতি। কিছুক্ষণ পর বাইকে করে ভরদ্বাজ ও সুরেন্দ্র নামের ওই দুই যুবক তাঁদের সামনে গিয়ে খারাপ ব্যবহার করতে থাকেন।

অভিযোগে ওই দম্পতি জানান, ভরদ্বাজ ও সুরেন্দ্র তাঁদের বলেন, ‘মুসলিমরা ভারতে থাকবে, অথচ রাম রাম করবে না?’ তাঁরা ওই দম্পতিকে ‘জয় শ্রী রাম’ বলতে বলায় স্বামী তা বলতে অস্বীকার করেন। এ সময় তাঁকে মারধর করা হয়। পাশে দাঁড়িয়ে থাকা স্ত্রী ঘটনার প্রতিবাদ করলে তাঁকেও যৌন হেনস্তা করা হয়।

এ ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে ওই দম্পতি সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে থাকেন। এ সময় পাশের কিছু লোক দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করেন। একইসঙ্গে ওই দুই যুবককে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেন তাঁরা। পরে তাঁদের আলওয়ারের রাজীব গান্ধী হাসপাতালে ভর্তি করে রাজস্থান পুলিশ।

ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ এ, ২৯৫ এ, ৫০৯, ৩২৩ ও ৩৮৬ ধারায় ওই দুই যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। গতকাল রোববার তাঁদের গ্রেপ্তার করে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। আগামী ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত দুজনকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

Advertisement